বাংলা নিউজ > ময়দান > কীভাবে অজিদের বিরুদ্ধে অসহ্য ব্যথা নিয়ে ক্রিজে টিকে ছিলেন, বিস্তারিত বললেন পূজারা
গাব্বায় চোট পেয়ে ব্যাথায় কাতরাচ্ছেন পূজারা। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
গাব্বায় চোট পেয়ে ব্যাথায় কাতরাচ্ছেন পূজারা। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

কীভাবে অজিদের বিরুদ্ধে অসহ্য ব্যথা নিয়ে ক্রিজে টিকে ছিলেন, বিস্তারিত বললেন পূজারা

  • অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আট ইনিংসে মোট ২৭১ রান করেন পূজারা।

সম্প্রতি ব্যাটে তাঁর রানের খরা, দলে তাঁর জায়গা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। তবে বছরের শুরুতেই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক সিরিজ জয়ে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের পথের কাঁটা হয়ে বারংবার ভারতের দুর্গ আগলে ছিলেন চেতেশ্বর পূজারা। ভাঙাচোরা দল নিয়ে ঘরের মাঠে অজিদের দর্প চূর্ণ করার সেই সিরিজ জয় ইতিহাসের পাতায় চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। 

একাধিক আঘাত সহ্য করেও ক্রিজে টিকে থাকার লড়াই সম্পর্কে BBC's Test Match Special podcast-এ পূজারা বলেন, ‘ভারতীয় দলের হয়ে টপ অর্ডারে ব্যাট করলে, বিশেষত বিদেশের মাটিতে, যে কোন ব্যাটসম্যানকেই সাহসী হতে হয়। অনেকসময়ই প্রয়োজনে আঘাত লাগলেও সেটা মেনে নিতে হবে। প্রচুর ধৈর্য এবং সঠিক মানসিকতার দরকার (সাফল্য পেতে গেলে)। এমন বেশ কয়েকটা ইনিংস রয়েছে যেখানে আমি আঘাত পাওয়া সত্ত্বেও খেলা চালিয়ে গিয়েছি। সেই কারণেই তো ওরা আমায় পাথরের সঙ্গে তুলনা করে।’ 

ঐতিহাসিক গাব্বা টেস্টে একদিকে যখন ঋষভ পন্ত একের পর এক শট খেলে দলকে জয়ের দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন, তখন অপরদিকে ঠিক পাথরের মতোই একের পর এক বল শরীর লাগার পরেও ক্রিজ আঁকড়ে পড়েছিলেন ৩৩ বছর বয়সী ভারতীয় ব্যাটসম্যান। বলের বাউন্স বুঝতে সমস্যা হওয়ার ফলেই বারবার তাঁর শরীরে বল লাগছিল বলে দাবি পূজারার।

তিনি জানান, ‘বলের বাউন্স নির্ণয় করা খুবই মুশকিল হচ্ছিল এবং প্রচুর বল আমার শরীরে লাগছিল। তবে আমি মনে মনে স্থির করেছিলাম, যাই হয়ে যাক না কেন আমি কোনমতেই আমার ব্যাট বা গ্লাভসে বল লাগতে দেব না। শর্ট পিচ বলের বিরুদ্ধে এটাই আমার পরিকল্পনা ছিল।’

বন্ধ করুন