বাংলা নিউজ > ময়দান > খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা চিনের টেনিস তারকা পেং শুয়াইকে! চিন্তিত নাওমি ওসাকা
চিনের প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন পেং
চিনের প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন পেং

খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা চিনের টেনিস তারকা পেং শুয়াইকে! চিন্তিত নাওমি ওসাকা

  • গ্রান্ড স্লাম টাইটেল বিজয়ী পেং দাবি করেন, চিনের প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি তাকে জোরপূর্বক যৌন সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করেছিলেন। তাদের মধ্যে বিবাহবহির্ভূত অন্তরঙ্গ সম্পর্ক ছিল।

গত ২রা নভেম্বর নিজের ওপর চালানো যৌন হয়রানি সম্পর্কে সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি বার্তা পোস্ট করেন চিনের সবচেয়ে সফল স্পোর্টস তারকাদের অন্যতম গ্রান্ড স্লাম টাইটেল বিজয়ী পেং। এতে তিনি দাবি করেন, চিনের প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি তাকে জোরপূর্বক যৌন সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করেছিলেন। তাদের মধ্যে বিবাহবহির্ভূত অন্তরঙ্গ সম্পর্ক ছিল। এমন অভিযোগ করার পর তা চিনের ইন্টারনেট জগত থেকে এই বার্তা মুছে দেওয়া হয়েছিল। চিনের প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি কয়েক বছর ধরে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক স্থাপন করেছিণে তার দেশের খ্যাতনামা টেনিস তারকা পেং শুয়াই’য়ের সঙ্গে। এই অভিযোগ করার পর থেকেই পেং শুয়াইয়ের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তিনি কোথায় আছেন, তা জানানোর জোর আহ্বান উঠেছে বিশ্বের বিভিন্ন শ্রেণির অ্যাথলেটদের পক্ষ থেকে। সর্বশেষ তাতে যোগ দিয়েছেন জাপানি টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। পেং শুয়াই নিখোঁজ থাকায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন তিনি। 

উল্লেখ্য, চিনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পেং শুয়াই পোস্ট দেওয়ার পর পরই তা সরিয়ে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তা সত্ত্বেও তার ওই পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। চিনে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যেকোনো পোস্ট, প্রতিক্রিয়া, এমনকি কোনো লেখায় ‘টেনিস’ শব্দটি থাকলেই তা ব্লক করে দেওয়া হয়েছে। পেং সংশ্লিষ্ট অসংখ্য রেফারেন্স নেট থেকে মুছে দেওয়া হয়েছে। পেং শুয়াইয়ের সোশ্যাল অ্যাকাউন্ট এখনও সক্রিয় রয়েছে। কিন্তু তাতে এখন আর প্রাক্তন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝাং-এর নাম উল্লেখ নেই। এমনকি এই পোস্টের কমেন্ট সেকশন ডিজঅ্যাবল করে রাখা হয়েছে।

এ অবস্থায় নারীদের টেনিসে বিশ্বের বর্তমান শ্রেষ্ঠ খেলোয়াড় জাপানের ওসাকা বুধবার একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রকাশ হওয়ার পর পরই কিভাবে পেং নিখোঁজ হয়ে গেলেন তা ভেবে তিনি হতাশ। নাওমি ওসাকা বিবৃতিতে বলেছেন, কোনও অবস্থায়ই যেকোনো মূল্যে সেন্সরশিপ আরোপ করা যথাযথ নয়। আমি আশা করি পেং শুয়াই এবং তার পরিবার নিরাপদে আছেন। সুস্থ আছেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে আমি হতাশ। তার প্রতি আমার ভালোবাসা রয়েছে। যৌন নির্যাতনের যে অভিযোগ পেং করেছেন, সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেনি চিন সরকার। আন্তর্জাতিক মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এমন একজন মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান সাংবাদিকদের শুধু বলেছেন, তিনি এ পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত নন। তিনি আরও বলেন, আপনাদের কাছ থেকেই আমি এ অভিযোগ শুনলাম। এটা কোনও কূটনৈতিক প্রশ্ন নয়।

বন্ধ করুন