বাংলা নিউজ > ময়দান > টানা চার ম্যাচে চূড়ান্ত ব্যর্থ গেইল, খাতা খুলতে পারলেন না বিধ্বংসী ফর্মে থাকা পুরান
খোশমেজাজে গেইল। ছবি- টুইটার।
খোশমেজাজে গেইল। ছবি- টুইটার।

টানা চার ম্যাচে চূড়ান্ত ব্যর্থ গেইল, খাতা খুলতে পারলেন না বিধ্বংসী ফর্মে থাকা পুরান

  • চলতি আবু ধাবি টি-১০ লিগে এখনও পর্যন্ত দু'অঙ্কের রানে পৌঁছতে ব্যর্থ দ্য ইউনিভার্স বস।

আইপিএল ২০২০-তে ফর্মে ছিলেন। তবে আইপিএলের পরেই নিতান্ত রংচটা দেখাচ্ছে ক্রিস গেইলকে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগের পর সংক্ষিপ্ত অবসর কাটিয়ে আবু ধাবি টি-১০ লিগে মাঠে নেমেছেন ক্যারিবিয়ান দৈত্য। যদিও ব্যাট হাতে একেবারেই ফর্মে নেই দ্য ইউনিভার্স বস।

সোমবার নর্দান ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে ৪ বলে মাত্র ২ রান করে আউট হন গেইল। এই নিয়ে টুর্নামেন্টের চারটি ম্যাচেই দু'অঙ্কের গণ্ডি টপকাতে ব্যর্থ হন তিনি।

ডেকান গ্ল্যাডিয়েটর্সের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে ৩ বলে ৪ রান করে আউট হন গেইল। ১টি বাউন্ডারি মারেন তিনি। গেইলকে ফিরিয়ে দেন উত্তরপ্রদেশের পেসার ইমতিয়াজ আহমেদ। দ্বিতীয় ম্যাচে কালান্দার্সের বিরুদ্ধে ৬ বলে ৫ রান করে সুলতান আহমেদের বলে উইকেট দেন ক্যারিবিয়ান তারকা। তিনি ১টি বাউন্ডারি মারেন সেই ম্যাচে।

পুণে ডেভিলসের বিরুদ্ধে তৃতীয় ম্যাচে ১টি ছক্কার সাহায্যে ৮ বলে ৯ রান করেন গেইল। তিনি বোল্ড হন নেপালের করণের বলে। ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে গেইল সাজঘরে ফেরেন জুনাইদ সিদ্দিকির বলে। স্বাভাবিকভাবেই গেইলের এমন খারাপ ফর্ম দুশ্চিন্তায় রাখতে পারে তাঁর আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে। 

গেইল ছাড়া এদিন নর্দানের হয়ে ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন নিকোলাস পুরান। আগের দু'টি ম্যাচে যথাক্রমে ২১ বলে ৫৪ ও ২৬ বলে ৮৯ রান করেছিলেন পুরান। টিম আবু ধাবির বিরুদ্ধে খাতা খুলতে পারেননি তিনি। যদিও নর্দানের জয় তুলে নিতে অসুবিধা হয়নি।

প্রথমে ব্যাট করে টিম আবু ধাবি ১০ ওভারে ৩ উইকেটে ১২৩ রান তোলে। ওয়ারিয়র্স একেবারে শেষ বলে ম্যাচ জেতে ২ উইকেটে ১২৪ রান তুলে।

বন্ধ করুন