বাংলা নিউজ > ময়দান > চুক্তি ভাঙার অভিযোগ! ঋদ্ধিমান সাহাকে নোটিশ পাঠাতে পারে BCCI
ঋদ্ধিমান সাহাকে নোটিশ পাঠাতে পারে BCCI (ছবি:এপি) (AP)

চুক্তি ভাঙার অভিযোগ! ঋদ্ধিমান সাহাকে নোটিশ পাঠাতে পারে BCCI

  • বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও দলের প্রধান কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে কথোপকথন প্রকাশ্যে এনে বিপদের মুখে পড়তে চলেছেন ভারতীয় উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা।

বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও দলের প্রধান কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে কথোপকথন প্রকাশ্যে এনে বিপদের মুখে পড়তে চলেছেন ভারতীয় উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা। সূত্রের খবর অসুবিধা বাড়তে পারে ঋদ্ধির। এই বিষয়ে বিসিসিআই তাকে প্রশ্ন করতে পারে। আসলে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজের দল থেকে বাদ পড়ার পর কোচ রাহুল দ্রাবিড়কে টার্গেট করেছিলেন সাহা। তিনি প্রকাশ করেছিলেন যে দ্রাবিড় তাকে অবসর নিয়ে ভাবতে বলেছিলেন। সেই বিষয়টি এখন সাহার জন্য সমস্যা তৈরি করতে পারে। কারণ তিনি বিসিসিআই-এর কেন্দ্রীয় চুক্তির তালিকায় অন্তর্ভুক্ত এবং তাঁর বক্তব্য প্রটোকল লঙ্ঘন করেছে।

খেলোয়াড়দের দ্বারা স্বাক্ষরিত বার্ষিক কেন্দ্রীয় চুক্তিতে একটি ধারা 6.3 রয়েছে (সাহা 3 কোটি টাকা বার্ষিক রিটেনারশিপ সহ গ্রুপ বি-তে রয়েছেন), যা ভারতীয় উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা স্পষ্টভাবে লঙ্ঘন করেছিলেন। খেলোয়াড়দের কেন্দ্রীয় চুক্তির ধারা 6.3 বলা আছে, ‘কোনও খেলোয়াড়- খেলা, কর্মকর্তা, খেলার ঘটনা, প্রযুক্তির ব্যবহার, দলের বাছাই প্রক্রিয়া বা খেলা সম্পর্কিত অন্য কোনও বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে পারবে না। বিসিসিআই-এর মতের প্রতিকূল এবং খেলা ও দলের স্বার্থে নয় এমন কিছু কোনও খেলোয়াড় প্রকাশ্যে বলতে পারবেন না।’

বিসিসিআই-এর কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল এই বিষয়ে বলেছেন, ‘হ্যাঁ, এমন সম্ভাবনা রয়েছে। বিসিসিআই ঋদ্ধিমানকে জিজ্ঞাসা করতে পারে। কেন তিনি কেন্দ্রীয়ভাবে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটার হয়ে কীভাবে নির্বাচনের বিষয়ে কথা প্রকাশ্যে বলেছেন? বোর্ড সম্ভবত জানতে চাইবে কেন তিনি কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে তার কথোপকথনটি প্রকাশ্যে আনলেন।’ শোনা যাচ্ছে বিসিসিআই সাহাকে নোটিশ পাঠাতে পারে। তাহলে বিসিসিআই কি আনুষ্ঠানিক কারণ দর্শানোর নোটিশ দেবে নাকি মৌখিকভাবে বিষয়টি নিয়ে জিজ্ঞাসা করবে? এ প্রশ্নের জবাবে ধুমল বলেন, ‘এ বিষয়ে আমরা এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। আমরা সবাই ব্যস্ত। তবে কয়েকদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

বিসিসিআই-এর অনেকেই মনে করেন যে দ্রাবিড়ের সঙ্গে সাহার কথোপকথন প্রকাশ করা উচিত হয়নি। কারণ এটা নিশ্চিতভাবেই তার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে। বিসিসিআইয়ের এক সিনিয়র আধিকারিক এই বিষয়ে বলেছেন যে রাহুল দ্রাবিড় ইতিমধ্যেই বলেছেন যে সাহার কথায় তিনি আঘাত পাননি। কারণ তিনি চাননি সাহা এসব কথা মিডিয়া থেকে জানুক। এটি একটি ব্যক্তিগত কথোপকথন ছিল এবং সাহা আহত হলেও তার চুপ থাকা উচিত ছিল। 

বন্ধ করুন