বাংলা নিউজ > ময়দান > 'তোমার থেকে অনেক কিছু পাওয়ার ছিল', ডিন জোন্সের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ ক্রিকেট মহল
১৯৮৭ সালের ৮ নভেম্বর কলকাতায় উচ্ছ্বসিত ডিন জোন্স (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
১৯৮৭ সালের ৮ নভেম্বর কলকাতায় উচ্ছ্বসিত ডিন জোন্স (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

'তোমার থেকে অনেক কিছু পাওয়ার ছিল', ডিন জোন্সের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ ক্রিকেট মহল

  • শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সচিন তেন্ডুলকর, বিরাট কোহলি, স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসরা।

চেন্নাইয়ের (তৎকালীন মাদ্রাজ) অসহ্য গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। তা সত্ত্বেও ঐতিহাসিক টাই টেস্টে সর্বশক্তি দিয়ে ব্যাট করে গিয়েছিলেন। করেছিলেন ২১০ রান। দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করা সেই ডিন জোন্স জীবনের শেষ প্রান্তে লড়াইয়ের ন্যূনতম সুযোগটাই পেলেন না। তাঁর অকাল প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ক্রিকেট মহলে।

গত বৃহস্পতিবার যখন হৃদরোগে আক্রান্ত হন, তখন তাঁর কাছেই ছিলেন ব্রেট লি। দ্রুত 'সিপিআর'-এর মাধ্যমে শ্বাস-প্রশ্বাস ফিরিয়ে আনার মরিয়া চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। পরে সন্ধ্যায় কিংস ইলেভন পঞ্জাব এবং রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ম্যাচের আগে আইপিএলের সম্প্রচারকারী চ্যানেল স্টার স্পোর্টসের অনুষ্ঠানে ‘প্রফেসর ডিনো’-কে শ্রদ্ধা জানান লি। তিনি বলেন, ‘উনি চাইতেন, আজ আমরা এখানে থাকি, কারণ আজ তো বলতে গেলে ডিনোর ডাগআউট (শোয়ের নাম) ছিল।’

অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের অন্যতম কিংবদন্তির প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন সচিন তেন্ডুলকরও। তিনি বলেন, 'ডিন জোন্সের প্রয়াণের খবর অত্যন্ত হৃদয়বিদারক। এত ভালো একজন মানুষ এত তাড়াতাড়ি চলে গেলেন। অস্ট্রেলিয়ায় আমার সফরে তাঁর বিরুদ্ধে খেলার সুযোগ হয়েছিল। তাঁর আত্মার চিরশান্তি কামনা করছি এবং তাঁর প্রিয় মানুষদের সমবেদনা জানাচ্ছি।' বিরাট কোহলি বলেন, 'ডিন জোন্সের আকস্মিক প্রয়াণে অত্যন্ত ধাক্কা খেলাম। তাঁর পরিবার এবং বন্ধুবান্ধবদের শক্তি দিন ঈশ্বর।'

ক্রিকেটের রূপকথায় জায়গা করে নেওয়া সেই টাই টেস্টে ডিন জোন্সের অধিনায়ক ছিলেন অ্যালান বর্ডার। নিজের জুনিয়রের মৃত্যুর খবরে ভেঙে পড়েছেন প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক। সিডনি মর্নিং হেরাল্ডকে তিনি বলেন, 'ও দুর্দান্ত বন্ধু ছিল। যার প্রতি আমার অগাধ সমর্থন ছিল। ক্রিকেটের পরেও আমাদের দারুণ সম্পর্ক ছিল এবং একটি মজার কাজ নিয়ে আজ সকালেই কথা বলেছিলাম। যেটায় আমাদের যুক্ত থাকার কথা ছিল।' সেই কাজ করতে না পারার আক্ষেপ কিছুতেই যাচ্ছে না বর্ডারের।

তাঁর মতোই ভেঙে পড়েছেন মাঠে জোন্সের প্রতিদ্বন্দ্বী স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস। একটি টুইটবার্তায় বলেন, ‘সকালে উঠেই একটা ভয়ঙ্কর খবর পেলাম। আমার কাছে তুমি প্রতিপক্ষ দলের একজন খেলোয়াড়ের থেকেও বেশি ছিলে। তুমি আমার ভাই ছিলে, আমার বন্ধু ছিলে। তোমার হাসি, তোমার উপস্থিতি সর্বদা মিস করব। সে বিশ্বের যে প্রান্তেই ক্রিকেট খেলা হোক না। শান্তিতে ঘুমাও ডিনো। তোমার থেকে আরও অনেক কিছু পাওযার ছিল বিশ্বের। আমরা হৃদয়ে তুমি সর্বদা থাকবে।’

বন্ধ করুন