রেফারির সঙ্গে তর্ক মারাদোনার।
রেফারির সঙ্গে তর্ক মারাদোনার।

ম্যাচের আগেই মারাদোনাকে লাল কার্ড দেখাতে পারতাম, বিস্ফোরক দাবি বিশ্বকাপ ফাইনালের রেফারির

  • মারাদোনাকে খেলোয়াড় হিসেবে অসামান্য আখ্যা দিলেও অত্যন্ত খারাপ মানুষ হিসেবে বর্ণনা করেন প্রখ্যাত রেফারি।

ম্যাচ শুরুর আগেই মারাদোনাকে লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠের বাইরে বার করে দিতে পারতেন। এমনই বিস্ফোরক দাবি ১৯৯০ ফিফা বিশ্বকাপ ফাইনালের রেফারি এদগার্দো কোদেসালের।

রোমে সেবার বিশ্বকাপ ফাইনালের হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্তিনা ও পশ্চিম জার্মানি। শেষ মুহূর্তের পেনাল্টি গোলে আর্জেন্তিনাকে ০-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় পশ্চিম জার্মানি। মারাদোনা মাঠের বাইরে যাওয়া থেকে বেঁচে গেলেও ম্যাচে লাল কার্ড দেখেন আর্জেন্তিনার দু'জন ফুটবলার। ম্যাচের ৮৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে জার্মানি।

রেফারির মতে, ম্যাচ শুরুর আগে যখন জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া হচ্ছিল, তখন নিরন্তর গালিগালাজ করছিলেন মারাদোনা। তাই তখনই তাঁকে লাল কার্ড দেখাতে পারতেন তিনি।

এদগার্দো বলেন, 'আমি ম্যাচ শুরুর আগেই মারাদোনাকে লাল কার্ড দেখাতে পারতাম। কারণ, ও জাতীয় সঙ্গীতের সময় ক্রমাগত গালিগালাজ করছিল।'

কোদেসাল আরও জানান যে, যখন পেদ্রোকে তিনি লাল কার্ড দেখান, তখন মারাদোনা তাঁকে চোর বলে কটুক্তি করেন। তাঁর কথায়, 'পরে যখন আমি পেদ্রোকে লাল কার্ড দেখানোর সিদ্ধান্ত নিই, তখন মারাদোনা আমাকে চোর বলে এবং দাবি করে যে, আমি ফিফার কাছ থেকে ঘুষ নিই।'

শেষে মারাদোনা সম্পর্কে এদগার্দো বলেন, 'মাঠে মারাদোনাকে অসাধারণ সব কাণ্ড ঘটাতে দেখেছি। এও দেখেছি যে, আগ্রাসী ট্যাকল করতে গিয়ে ওর হাঁটু বেলুনের মতো ফুলে গিয়েছিল। ফুটবলার হিসেবে ও নিঃসন্দেহে সেরা। তবে মানুষ হিসেবে ও নিতান্ত অপ্রীতিকর। সম্ভবত আমার জীবনে দেখা সব থেকে খারাপ মানুষের মধ্যে একজন হল মারাদোনা।'

বন্ধ করুন