বাড়িতে পোষ্যের সঙ্গে খেলা করছেন বিরুষ্কা। ছবি- টুইটার।
বাড়িতে পোষ্যের সঙ্গে খেলা করছেন বিরুষ্কা। ছবি- টুইটার।

লকডাউনে পোষ্যের সঙ্গে বিরুষ্কার খেলায় মাতার ছবি ভাইরাল

  • কোহলির ঘরণী বুধবার আরও একটি পারিবারিক ছবি পোস্ট করেন টুইটারে। সঙ্গে দীর্ঘ এক বার্তা।

লকডাউনে বাধ্যতামূলক গৃহবন্দিদশার বৃহত্তর উদ্দেশ্য থাকলেও পড়ে পাওয়া কিছু অবসর মানুষকে উপলব্ধি করতে শিখিয়েছে যে, জীবনের গুরুত্বপূর্ণ আরও একটি দিক রয়েছে। অন্তত তেমনটাই বোঝা গেল সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুষ্কা শর্মার বার্তায়।

করোনার জেরে লকডাউন এবং সংক্রমণ এড়াতে হোম কোয়ারান্টাইন কখনই কাম্য ছিল না। মারণ ভাইরাস এভাবে মহামারী হয়ে দাঁড়াবে এমনটা আশা করেনিন কেউই। তাই সবাই মিলে লড়াই চালাচ্ছেন মানব সমাজের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য। তবে বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে কাটানো এই সময়গুলো শত ব্যস্ততার মাঝে উপেক্ষিত থেকে যাওয়া মুহূর্তগুলোর গুরুত্ব বোঝাচ্ছে সবাইকে

লকডাউনের মাঝে বিরাট ও অনুষ্কা সোশ্যল মিডিয়ায় বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও শেয়ার করেছেন। কোহলির ঘরণী বুধবার আরও একটি পারিবারিক ছবি পোস্ট করেন টুইটারে। সঙ্গে দীর্ঘ একটা বার্তা।

ছবিতে মেঝেতে শুয়ে থাকা বিরাট ও অনুষ্কাকে তাদের পোষ্যের সঙ্গে খেলা করতে দেখা যাচ্ছে। ছবিটির সঙ্গে যে বার্তা দিয়েছেন বলিউড তারকা, তার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায়, 'সব কালো মেঘেরই একটা রুপালি আস্তরণ থাকে।যদিও এটা বিভিন্ন দিক থেকে অত্যন্ত খারাপ সময়, তবু এই সময়টাই আমাদের সবকিছু বন্ধ রেখে এমন কিছু বিষয়ের মুখোমুখি হতে বাধ্য করেছে, ব্যস্ততার জন্য যেগুলো আমরা এড়িয়ে যেতাম বা এড়িয়ে যাওয়ার জন্য ব্যস্ততার অজুহাত দিতাম। যদি এই মুহূর্তটার কোনও ইতিবাচক দিক খুঁজি, তবে সেই দিকটা অত্যন্ত উজ্জ্বল দেখাবে। এই সময়টা আমাদের উপলব্ধি করিয়েছে জীবনে প্রকৃত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কোনগুলি।'

অনুষ্কা আরও লেখেন, 'আমার কাছে খাদ্য, জল, মাথার উপর ছাদ এবং পরিবারের সকলের সুস্বাস্থ্যই এখন সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হচ্ছে। বাকি যা কিছু, সবই বাড়তি পাওনা এবং তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। তবে আমার কাছে যেগুলো প্রাথমিক প্রয়োজন, মানুষকে সেগুলির জন্যই কষ্ট করতে দেখে মনে হচ্ছে সবার কাছে সেগুলি প্রাথমিক নয়। সেই মানুষগুলো ও তাঁদের পরিবারের জন্য আমার প্রর্থণা রইল। সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্য থাকুন।'

এর আগে বিরাটের চুল কেটে দেওয়ার ছবি পোস্ট করেছিলেন অনুষ্কা। বিরাট ও অনুষ্কা দু'জনে একসঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও বার্তায় করোনা মোকাবিলায় তাঁদের সাহায্য করার কথাও জানিয়েছেন।

বন্ধ করুন