আমির খানের সঙ্গে গীতা ও ববিতা ফোগত। ছবি- টুইটার।
আমির খানের সঙ্গে গীতা ও ববিতা ফোগত। ছবি- টুইটার।

জামাতিদের বিরুদ্ধে বেনজির আক্রমণ বাস্তবের দুই 'দঙ্গল' কন্যার

  • ক্ষুব্ধ ববিতা জামাতিদের এই মুহূর্তে দেশের সব থেকে বড় সমস্যা বলে উল্লেখ করেন।

করোনা মহামারির বিরুদ্ধে দেশের ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ে অসহযোগিতা করছেন তবলিগি জামাতিরা। এমন অভিযোগ তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় জামাতিদের উদ্দেশ্যে বেনজির আক্রমণ শানালেন বাস্তবের দুই দঙ্গল কন্যা ববিতা ও গীতা ফোগত।

গত কয়েকদিনে ববিতা ও গীতা একাধিক বিতর্তিক টুইট করেন জামাতিদের নিয়ে। এমনকি তাঁদের বর্বর বলেও উল্লেখ করেন দুই কুস্তিগীড়।

সারা দেশে মোট করোনা আক্রান্তদের মধ্যে বড় একটা অংশ তবলিগি জামাতিদের দ্বারা সংক্রামিত হযেছে বলে মনে করা হচ্ছে। আক্রান্ত জামাতির সংখ্যাও নেহাৎ কম নয়। শুধু দিল্লিতেই এক হাজারেরও বেশি জামাতির করোনা সংক্রমাতি হওয়ার খবর মিলেছে। শোনা যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে লুকিয়ে থাকা ছাড়াও আক্রান্ত জামাতিরা ডাক্তারদের সঙ্গে সহযোগিতা তো করছেনই না, এমনকি কর্তব্যরত নার্সদের সঙ্গে অশালীন আচরণও করছেন।

মোরাদাবাদে করোনায় মৃত জামাতির পরিবারের সদস্যদের কোয়ারান্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হলে স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশের উপর আক্রমণ চালানো হয়। এই ঘটনায় যারপরনাই ক্ষুব্ধ ববিতা ও গীতা। ক্ষোভ চেপে রাখতে না পেরে ববিতা জামাতিদের এই মুহূর্তে দেশের সব থেকে বড় সমস্যা বলে উল্লেখ করেন।

বুধবার ববিতা টুইট করেন, 'করোনা ভাইরাস ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমস্যা। বর্বর জামাতিরা এখনও এক নম্বরে রয়েছে।'

পরে আরও একটি টুইটে ববিতা লেখেন, 'মোরাদাবাদে এক জামাতির করোনায় মৃত্যু হয়েছে। যখন ডাক্তার ও পুলিশের দল পরিবারের বাকি সদস্যদের কোয়ারান্টাইনের জন্য উপস্থিত হয়, তখন লোকে তাঁদের উপর হামলা চালায়। অ্যাম্বুল্যান্স ভাঙা হয়। ডাক্তারদের রক্তাক্ত করে দেওয়া হয়। আমি জানতে চাই এখন জামাতিদের শুভাকাঙ্খীরা কোথায় গেলেন, সামনে এসে জবাব দিন।'

সোশ্যল মিডিয়া ববিতাকে সমর্থন করেন গীতা। তিনি টুইট করেন, 'করোনা ভাইরাস তো রয়েছেই, বর্বর জামাতিরাও ভাইরাস হয়ে গিয়েছে।'

বন্ধ করুন