কঠিন সময়ে ক্লাবের পাশে দাঁড়ালেন সিআর সেভেন। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
কঠিন সময়ে ক্লাবের পাশে দাঁড়ালেন সিআর সেভেন। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

চার মাসের বেতন দেবে না জুভেন্তাস, ৩২ কোটি টাকার ক্ষতি মেনে নিলেন রোনাল্ডো

  • ক্লাবের বার্ষিক বাজেটের মোট ৯০ মিলিয়ন ইউরো কম খরচ হবে চলতি মরশুমে।

করোনার জেরে বন্ধ খেলা। এমনকি অনির্দিষ্টকালের জন্য অনুশীলন পর্বও স্থগিত। ফুটবলাররা সবাই কোয়ারান্টাইনে। এই অবস্থায় ইউরোপের প্রায় সব ক্লাবই বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে। ফুটবলাররাও বোঝেন পরিস্থিতিটা। তাই ক্লাবের প্রতি সহানুভূতিশীল দেখাচ্ছে তাঁদেরও।

ইউরোপের বড় ক্লাবগুলি ইতিমধ্যেই বেতন কমানোর প্রস্তাব দিয়েছে ফুটবলারদের কাছে। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে ফুটবলাররাও রাজি ক্লাবের প্রস্তাবে। এবার সিরি-এ চ্যাম্পিয়ন জুভেন্তাসও হাঁটল বেতন হ্রাসের পথে। বলাবাহুল্য, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোরা হাসি মুখেই তা মেনে নিয়েছেন বলে খবর।

ইতালির সংবাদমাধ্যমে সূত্রে খবর, জুভেন্তাসের হয়ে ফুটবলারদের সঙ্গে আলোচনা চালান ক্যাপ্টেন জর্জিও চিয়েল্লিনি। ক্লাবের তরফে আলোচনাপর্বে উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডেন্ট আন্দ্রে ও চিফ ফুটবল অফিসার ফ্যাবিও।

ক্লাবের তরফে জানানো হয়েছে যে, চলতি বছরের মার্চ, এপ্রিল, মে ও জুন, এই চার মাসের মাইনে না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কোচ সারি এবং প্রথম দলের সব ফুটবলাররা। ফলে ক্লাবের বার্ষিক বাজেটের মোট ৯০ মিলিয়ন ইউরো কম খরচ হবে চলতি মরশুমে। যার মধ্যে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ত্যাগ করছেন ৩.৮ মিলিয়ন ইউরো। অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৩২ কোটি টাকা বেতন কম নেবেন সিআর সেভেন।

ইউরোপে করোনা মহামারীর প্রভাব সব থেকে বেশি ইতালিতেই। ১০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন সেদেশ। জুভেন্তাসের তিন ফুটবলার ড্যানিয়েল রুগানি, ব্লেস মাতুইদি ও পাওলো দিবালা আক্রান্ত হন করোনায়।

বন্ধ করুন