আগামী ২৯ মার্চ থেকে শুরু হবে ত্রয়োদশ আইপিএল। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
আগামী ২৯ মার্চ থেকে শুরু হবে ত্রয়োদশ আইপিএল। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

IPL 2020- করোনার জেরে ভিসা নিষেধাজ্ঞার জন্য ১৫ এপ্রিল অবধি থাকবেন না বিদেশিরা, সংশয়ে টুর্নামেন্ট

টুর্নামেন্ট আদৌ হবে কিনা, সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ পেরিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভাইরাসের সংক্রমণ রোখার জন্য ১৫ এপ্রিল অবধি ভিসার ওপর কড়াকড়ির কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এরফলে সেই তারিখ অবধি বিদেশি ক্রিকেটাররা আইপিএলে খেলতে পারবেন না। টুর্নামেন্ট আদৌ হবে কিনা, সেই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

শীর্ষ বিসিসিআই কর্তা জানিয়েছেন ১৫ এপ্রিল অবধি বিদেশিরা খেলতে পারবেন না। ২৯ মার্চ থেকে শুরু আইপিএল। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র সরকার জানিয়েছে তারা আইপিএল চলাকালীন মাঠে দর্শক আসতে দেবে না। এর ফলে দর্শকশূন্য মাঠে আইপিএল হওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। আইপিএলের দিন পিছিয়েও যেতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে। শনিবার আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে এই সংক্রান্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানা যাচ্ছে।

১৩ মার্চ খেকে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে অধিকাংশ ভিসার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এবার যারা আইপিএলে খেলেন, তাদের বিজনেস ভিসা থাকে। সেরকম ভিসার ক্ষেত্রে কোনও ছাড় দেইনি কেন্দ্র। ফলে বিদেশি খেলোয়াড়দের আইপিএলের প্রথমভাগে খেলার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে, বলে বিসিসিআই সূত্রে জানা গিয়েছে।

যাদের ওয়ার্ক ভিসা বা এম্প্লয়মেন্ট ভিসা আছে তাদের জন্য ছাড় দিয়েছে কেন্দ্র। কিন্তু বিজনেস ক্লাসের ভিসার ক্ষেত্রে কিছু না বলা থাকায় ঝুঁকি নিতে চাইছে না বিসিসিআই। আইপিএল পিছানোর সেভাবে তেমন সুযোগ নেই কারণ এরপর সব দলই ব্যস্ত হয়ে যাবে। তাই প্রথম সারির ক্রিকেটারদের পাওয়া যাবে না। ফলে খালি স্টেডিয়ামে আইপিএল করার দিকেই এখন ঝুঁকছে বিসিসিআই। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত যাই হোক না কেন, করোনা ত্রাসে যে আইপিএলের জৌলুস কমবে, তা বলাই যায়।



বন্ধ করুন