কোর্টে সৌজন্য বিনিময়ের এই ছবি নাও চোখে পড়তে পারে এবার থেকে। ছবি- গেটি ইমেজেস।
কোর্টে সৌজন্য বিনিময়ের এই ছবি নাও চোখে পড়তে পারে এবার থেকে। ছবি- গেটি ইমেজেস।

বদলে যাচ্ছে লকডাউন পরবর্তী টেনিস, কী কী নিষিদ্ধ, জারি হল ITF-এর নির্দেশিকা

  • কোর্টে ও কোর্টের বাইরে কী কী করা যাবে না, দীর্ঘ তালিকা প্রকাশ করল ইন্টারন্যাশনাল টেনিস ফেডারেশন।

বদলে যেতে চলেছে টেনিসের পরিচিত ছবি। করোনা ভাইরাসের জেরে ইন্টারন্যাশনাল টেনিস ফেডারেশন নতুন যে নির্দেশিকা জারি করেছে, তা কার্যকর হলে লকডাউন পরবর্তী টেনিসে কী করা যাবে আর কী কী করা যাবে না, তা নিয়েই ধন্দে পড়তে পারেন খেলোয়াড়রা। যদিও আপাতত স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের টেনিসেই জারি হচ্ছে এই 'কার্ফু'।

নো (হ্যান্ড) শেকিং, নো শাওয়ারিং, নো শেয়ারিং, নো সাইনিং। অর্থাৎ, করমর্দন করা যাবে না। ড্রেসিংরুমে স্নান করা যাবে না। একই সেটের বল দু'প্রান্তের খেলোয়াড়রা সার্ভিসের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন না। খেলার পর স্মারক বা অটোগ্রাফ বিলোনো যাবে না। এধরণের বেশ কিছু ফতোয়া জারি করা হয়েছে আইটিএফের নতুন নির্দেশিকায়। একনজরে দেখে নেওয়া যাক তালিকাটা।

# খেলার পোশাকেই স্টেডিয়ামে আসতে হবে এবং খেলা শেষ হওয়া মাত্রই কোর্ট তথা এরিনা ছেড়ে বেরিয়ে যেতে হবে।

# লকার রুম ব্যবহার করা যাবে না। স্নান করাও যাবে না ড্রেসিংরুমে।

# কোর্টের বাইরে সবসময় মাস্ক পরে থাকতে হবে এবং সৌজন্য বিনিময়ের সময় খেলোয়াড় ও ম্যাচ অফিসিয়ালদের সঙ্গে ২ মিটারের দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

# প্রত্যেক খেলোয়াড়কে সার্ভিসের সময় নিজেদের সেটের বল ব্যবহার করতে হবে। দুই খেলোয়াড়ের বল আলাদা নম্বর দিয়ে চিহ্নিত করা থাকবে।

# বল বয় ও বল গার্লদের গ্লাভস পরে থাকতে হবে। খেলোয়াড়রা নেটের একই দিক দিয়ে প্রান্ত বদল করতে পারবেন না।

# ম্যাচের আগে-পরে সমর্থকদের সঙ্গে সেলফি নেওয়া, অটোগ্রাফ দেওয়া, স্মারক বিলি করা প্রভৃতি নিষিদ্ধ।

# আপাতত শুধুমাত্র সিঙ্গলস খেলা হবে এবং তাও দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে।

বন্ধ করুন