মহেশ ভূপতি ও লিয়েন্ডার পেজ। ছবি- এএফপি।
মহেশ ভূপতি ও লিয়েন্ডার পেজ। ছবি- এএফপি।

দ্বন্দ্ব ভুলিয়ে লি-হেশকে আবার কাছাকাছি আনল ফ্রাইংপ্যান চ্যালেঞ্জ

  • লিয়েন্ডার-মহেশের ডাবলস জুটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রভূত সাফল্য এনে দিয়েছে দেশকে। তবে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দু'জনের ব্যক্তিগত সম্পর্কের তিক্ততাও ক্রমশ বাড়ে।

তিক্ততা ভুলে আবার কাছাকাছি লিয়েন্ডার পেজ ও মহেশ ভূপতি। ভারতীয় টেনিসের সর্বকালের সেরা দুই ডাবলস তারকা আবার জুটি বাঁধলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। লকডাউনে বাড়িতে কাটানো অলস সময়ে পারস্পরিক দ্বন্দ্ব ভুলে পুনরায় একে-অপরের পাশে দাঁড়ালেন লি-হেশ।

লিয়েন্ডার-মহেশের ডাবলস জুটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রভূত সাফল্য এনে দিয়েছে দেশকে। তবে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দু'জনের ব্যক্তিগত সম্পর্কের তিক্ততাও বাড়ে। খেলা ছেড়েছেন মহেশ। ভারতের ডেভিস কাপ দলকে নেতৃত্বও দিয়েছেন। লিয়েন্ডার এখনও খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন। চলতি মরশুম শুরুর আগেই তিনি ঘোষণা করেছেন এবার ইতি টানবেন কেরিয়ারে।

যদিও করোনা মহামারী লিয়েন্ডারের অবসর পরিকল্পনায় সাময়িকভাবে জল ঢেলে দিয়েছে। আপাতত লকডাউনে লিয়েন্ডার ও মহেশ দু'জনেই স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি রয়েছেন।

লিয়েন্ডার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করে ফ্রাইংপ্যান চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন অনুরাগীদের দিকে। যদিও নির্দিষ্ট কাউকে ট্যাগ করে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেননি লি। ভিডিওয় লিয়েন্ডারকে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে একটি ফ্রাইংপ্যান দিয়ে দেওয়ালে বল মারতে দেখা যায়। ক্যপশনে তিনি লেখেন, 'লকডাউনে আপনাদের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ রইল। কতজন এটা করতে পারেন?' লিয়েন্ডার তাঁকে ভিডিও ট্যাগ করার জন্য অনুরোধ জানান অনুরাগীদের।

আসরে নামেন ভূপতি। নিজের পুরনো পার্টনারের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেন তিনি। তবে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে বল মারতে পারেননি মহেশ। টুইটারে নিজের ভিডিও পোস্ট করে মহেশ লেখেন, 'লিয়েন্ডার, তোমার মতো ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে কথা বলতে বলতে এটা করার চেষ্টা করেছিলাম। তবে তোমার মতো স্কিল নেই আমার। তাই তুলনায় ছোট একটা প্যান নিয়ে বিষয়টাকে আরও চ্যালেঞ্জিং করলাম।'

এর পরেই লিয়েন্ডার সোশ্যাল মিডিয়ায় মহেশের প্রশংসা করে লেখেন, 'তোমার মধ্যে সবসময় অভিভূত করার মতো স্কিল ছিল। আমার মনে আছে সেই ভলি, যেটা আমাদের বেশ কয়েকটা গ্র্যান্ড স্ল্যাম এনে দিয়েছে।'

বন্ধ করুন