করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সরকারকে সাহায্য পাক ক্রিকেট দলের। ছবি-এএফপি (AFP)
করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সরকারকে সাহায্য পাক ক্রিকেট দলের। ছবি-এএফপি (AFP)

মানবিক সিদ্ধান্ত পাক ক্রিকেটারদের, করোনা তহবিলে বড় অঙ্কের অনুদান

  • শুধু ক্রিকেটাররাই নন, আপৎকালীন তহবিলে অর্থ যোগান দেওয়ার কাজে অবদান রেখেছেন পাক বোর্ডের আধিকারিকরাও।

করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে সম্মিলিত লড়াইয়ে সামিল হতে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ইতিমধ্যেই দেশের সরকারকে আর্থিক সহযোগিতার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এবার পাকিস্তানের ক্রিকেটাররাও সেই পথেই হাঁটলেন। পাক বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তির আওতায় থাকা ক্রিকেটাদের একযোগে সরকারি তহবিলে ৫০ লক্ষ রুপি অনুদান দেওয়ার কথা জানিয়েছে পিসিবি।

শুধু ক্রিকেটাররাই নন, আপৎকালীন তহবিলে অর্থ যোগান দেওয়ার কাজে অবদান রেখেছেন পাক বোর্ডের আধিকারিকরাও।

পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি জানিয়েছেন, ক্রিকেটারদের ৫০ লক্ষ ছাড়াও সিনিয়র ম্যানেজার পর্যায় পর্যন্ত বোর্ডের সকল কর্মী একদিনের এবং জেনারেল ম্যানেজার ও তার থেকেও উচ্চপদস্ত কর্তারা দু'দিনের মাইনে অনুদান হিসেবে সরকারি তহবিলে জমা দেবেন।

মানি বলেন, 'আমরা সকলের কাছ থেকে অর্থ একত্রিত করে সরকারের করোনাভাইরাস তহবিলে জমা দেব। অতীতে যখনই প্রয়োজন পড়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এভাবেই সরকারের পাশে দাঁড়িয়েছে।'

পিসিবি ইতিমধ্যেই করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে তাদের হাই পারফর্ম্যান্স সেন্টার করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য তুলে দিয়েছে সরকারকে।

বাংলাদেশের ২৭ জন ক্রিকেটার সরকারি তহবিলে অনুদান বাবদ তাঁদের অর্ধেক মাসের মাইনে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফে এখনও তেমন কোনও উদ্যোগ চোখে না পড়লেও বিষয়টি নিয়ে সচিবের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানিয়েছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে তিনি ব্যক্তিগতভাবে ৫০ লক্ষ টাকা মূল্যের চাল গরিব মানুষের মধ্যে বিতরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বাংলার ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ইতিমধ্যেই ২৫ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছে রাজ্য সরকারের আপৎকালীন তহবিলে।

বন্ধ করুন