বাড়ি > ময়দান > Covid-19: মানুষের জীবন নিয়ে খেলছে পাকিস্তান, দাবি আখতারের
করোনা নিয়ে দেশের মানুষের অসতর্কতায় চিন্তিত আখতার। ছবি- গেটি ইমেজেস।
করোনা নিয়ে দেশের মানুষের অসতর্কতায় চিন্তিত আখতার। ছবি- গেটি ইমেজেস।

Covid-19: মানুষের জীবন নিয়ে খেলছে পাকিস্তান, দাবি আখতারের

  • ভারতে মানুষ স্বেচ্ছায় কার্ফু পালন করছে। আর পাকিস্তানে মানুষ বাড়িতে থাকতে রাজি নয়।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সারা বিশ্ব একযোগে লড়াই চালাচ্ছে। সতর্ক সব দেশই। তবে এমন সংকটময় পরিস্থিতিতেও শিক্ষা নেয়নি পাকিস্তান। এমনটাই মত প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার শোয়েব আখতারের।

নিজের ইউ টিউব চ্যানেলে আখতার দাবি করেন, করোনার জেরে লকডাউনের সময়টাকে পাকিস্তানিরা ছুটির দিনে পিকনিকের মতো ব্যবহার করছেন। সতর্কবার্তা উপেক্ষা করে তাঁরা রাস্তায় দল বেঁধে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এর ফলে করোনা ভাইরাসের আবাধ সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন প্রাক্তন স্পিড স্টার। দেশের মানুষদের তিনি অনুরোধ জানাচ্ছেন, এমন গুরুতর বিষয়কে হালকাভাবে না নেওয়ার।

আখতারের কথায়, 'খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা কাজে আজ একবার অল্প সময়ের জন্য বাইরে বেরিয়েছিলাম। কারও সঙ্গে করমর্দন বা আলিঙ্গনে সৌজন্য বিনিময় পর্যন্ত করিনি। সারক্ষণ আমার গাড়ির কাচ বন্ধ ছিল এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমি বাড়ি ফিরে আসি। তবে আমি লক্ষ্য করি বাইরে বিপজ্জনক একটা প্রবণতা কাজ করছে। দেখি চার জন একই বাইকে পিকনিক সেরে ফিরছে। রাস্তার ধারে একসঙ্গে সবাই খাওয়া দাওয়া করছে। যেখানে খুশি সবাই যাওয়া আসা করছে। আমি বুঝতে পারছি না যে, রেস্টুরেন্টগুলো কেন খোলা রয়েছে। জানিনা কেন আমরা ওগুলো বন্ধ করছি না।'

আখতার আরও বলেন, 'ভারতে মানুষ স্বেচ্ছায় কার্ফু পালন করছে। আর পাকিস্তানে মানুষ বাড়িতে থাকতে রাজি নয়। অথচ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভাইরাস সংক্রামিত হয়েছে মানুষে মানুষে সংস্পর্শে। এটা আমরা কী করছি? এটা অত্যন্ত ভয়ঙ্কর। মানুষের জীবন নিয়ে খেলা চলছে পাকিস্তানে।'

শেষে ইতালির উদাহরণ টেনে আখতার বলেন, 'আমি পাকস্তান সরকারের কাছে অনুরোধ করছি কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার। শহরগুলো অবিলম্বে যথাযথ লকডাউন করা দরকার। ইতালি শুরুতেই লকডাউন না করে বড় ভুল করেছে। বলতে খারাপ লাগছে যে, পাকিস্তানিরা এখনও বারণ শুনছে না। পাকিস্তানিরা এখনও উৎসবের মেজাজে রয়েছে।'

বন্ধ করুন