বাংলা নিউজ > ময়দান > সাইমন্ডসের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ক্রিকেট বিশ্ব, আখতার থেকে গিলক্রিস্ট সকলেই অবাক
প্রয়াত অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস

সাইমন্ডসের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ক্রিকেট বিশ্ব, আখতার থেকে গিলক্রিস্ট সকলেই অবাক

  • অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের মৃত্যুর পর তার সতীর্থ অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক অ্যালান বর্ডার সহ ভিভিএস লক্ষ্মণও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। 

রবিবার ভোররাতে অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের মৃত্যুর খবরে শোকে মুহ্যমান ক্রিকেট বিশ্ব।৪৬বছর বয়সী সাইমন্ডস একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান। শনিবার রাত ১১টার দিকে গাড়িটি রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে পুলিশের প্রতিবেদনে জানা গেছে।চিকিৎসকরা প্রাক্তন খেলোয়াড়কে বাঁচানোর জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু দুর্ঘটনার সময় লেগে থাকা আঘাতের কারণে তারা তাকে বাঁচাতে পারেননি। অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের মৃত্যুর পর তার সতীর্থ অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক অ্যালান বর্ডার সহ ভিভিএস লক্ষ্মণও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

শোয়েব আখতার টুইট করে লিখেছেন,‘অস্ট্রেলিয়ায় একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের মৃত্যুর কথা শুনে অবাক। মাঠে এবং বাইরে আমাদের একটি দুর্দান্ত সম্পর্ক রয়েছে। তার পরিবারের পাশে থেকে তার জন্য প্রার্থনা করব।’

অ্যাডাম গিলক্রিস্ট টুইট লিখেছেন,‘এটি সত্যি আঘাত দেয়।’ অন্য একটি টুইটে তিনি লিখেছেন,‘আপনার সবচেয়ে বিশ্বস্ত, মজার, প্রেমময় বন্ধুর কথা ভাবুন যে আপনার জন্য সবকিছু করতে পারে। তিনি হলেন রয়।’

নাইন নেটওয়ার্কের সঙ্গে আলাপকালে অ্যালান বর্ডার বলেন,‘সে বল লম্বা হিট করে ভক্তদের বিনোদন দিতে চেয়েছিল। সে অনেকটা সেকেলে ক্রিকেটার ছিল।’ এদিকে ভারতের ভিভিএস লক্ষ্মণও টুইট করেছেন। তিনি লিখেছেন,‘ভারতের সকালে ঘুম থেকে উঠে এই খবর শুনে চমকে গিয়েছি। আমার বন্ধু আপনি যেখানেই থাকুন শান্তিতে থাকুন। খুব খারাপ খবর।’

পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে,‘প্রাথমিক তথ্যে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে যে রাত১১টার পর এলিস রিভার ব্রিজের কাছে হার্ভে রেঞ্জ রোডে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। গাড়িটি রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে এবং দুর্ঘটনা ঘটে। জরুরি পরিষেবা দিয়ে৪৬নামে বছর বয়সীকে বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। তবে চোটের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। ফরেনসিক ক্র্যাশ ইউনিট তদন্ত করছে।’

সাইমন্ডস, যিনি ২০০৩ এবং ২০০৭ বিশ্বকাপ স্কোয়াডের অংশ ছিলেন, অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৬টি টেস্ট, ১৯৮টি ওয়ানডে এবং ১৪টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। এই সময়ে তার ব্যাট থেকে যথাক্রমে ১৪৬২, ৫০৮৮ এবং ৩৩৭ রান এসেছে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তিনি তিনটি ফর্ম্যাটেই মোট ১৬৫ উইকেট নিয়েছেন। সাইমন্ডস তার আক্রমণাত্মক মেজাজের জন্যও পরিচিত ছিলেন।

বন্ধ করুন