বাংলা নিউজ > ময়দান > CWG 2022: অচিন্ত্যর সাফল্যে উচ্ছ্বসিত বাংলা সহ গোটা দেশ,মমতা থেকে মোদীর শুভেচ্ছা
অচিন্ত্য শিউলি।

CWG 2022: অচিন্ত্যর সাফল্যে উচ্ছ্বসিত বাংলা সহ গোটা দেশ,মমতা থেকে মোদীর শুভেচ্ছা

  • বার্মিংহ্যাম কমনওয়েলথ গেমসের ভারোত্তলন থেকে এল ভারতের তৃতীয় সোনা। তাও বাংলার ছেলের হাত ধরে। ছেলেদের ৭৩ কেজি বিভাগে গেমস রেকর্ড গড়ে সোনা জয় করলেন বাংলার অচিন্ত্য শিউলি। বাংলার প্রথম অ্যাথলিট হিসেবে কমনওয়েলথে সোনা পেলেন অচিন্ত্য।

বার্মিংহ্যাম কমনওয়েলথ গেমসের মঞ্চে বাংলাকে গর্বে ভরিয়ে দিলেন অচিন্ত্য শিউলি। ভারোত্তলন ছেলেদের ৭৩ কেজি বিভাগে গেমসে রেকর্ড গড়ে সোনা জিতলেন বাংলার অচিন্ত্য। আর তার পর থেকেই বাংলা সহ গোটা দেশের শুভেচ্ছার জোয়ারে ভাসছেন তিনি।

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অচিন্ত্যকে শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, ‘বাংলার ছেলে অচিন্ত্য শিউলির হাত ধরে ভারত কমনওয়েলথ গেমসে তৃতীয় স্বর্ণপদক জিতেছে। যা সত্যিই আমাদের সকলের জন্য গর্বের মুহূর্ত। ওকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন। তোমার সাফল্য দেশের অগণিত ক্রীড়াবিদের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। আপনার ভবিষ্যতের জন্য অল দ্য বেস্ট!’

শুধু বাংলার মুখ্যমন্ত্রী একক নন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং ভারতের প্রসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মুও শুভেচ্ছায় ভরিয়ে দিয়েছেন হাওড়ার দেউলপুরের ২০ বছরের তরুণকে।

আরও পড়ুন: বাবা ভ্যান চালাতেন, সংসার চলত ৫০০টাকায়, লড়াই করে সোনা জয়, তবু খুশি নন অচিন্ত্য

ঠিক ১১ দিন আগে ‘পেপটক’ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেইসঙ্গে আশাপ্রকাশ করেছিলেন, কমনওয়েলথ গেমসে নিজের সেরাটা উজাড় করে দেবেন অচিন্ত্য শিউলি। প্রধানমন্ত্রীর সেই আস্থা রাখলেন হাওড়ার ছেলে। পুরনো সেই ভিডিয়ো শেয়ার করে মোদী লিখেছেন, ‘আমাদের দল কমনওয়েলথ গেমসের জন্য রওনা হওয়ার আগে, আমি অচিন্ত্য শিউলির সঙ্গে কথা বলেছিলাম। ওর মা এবং ভাইয়ের কাছ থেকে ও যে সমর্থন পেয়েছিল, তা নিয়েও আমরা আলোচনা করেছিলাম। আমি আশা করি, পদক জয়ের পর ও এখন একটি ছবি দেখার সময় পাবে।’

দ্রৌপদী মুর্মু আবার টুইট করে লিখেছেন, ‘অচিন্তা শিউলি কমনওয়েলথ গেমসে সোনা জিতে এবং তেরঙ্গা উঁচু করে ভারতকে গর্বিত করেছে। নিজের ব্যর্থতা পিছনে ফেলে ঘুরে দাঁড়িয়ে সোনা জিতলে এবং শীর্ষে জায়গা করে নিলে। তুমি হলে চ্যাম্পিয়ন। যে ইতিহাসও রচনা করেছে। আন্তরিক অভিনন্দন!’

অচিন্ত্য স্ন্যাচের প্রথম প্রচেষ্টায় ১৩৭ কেজি ভার তোলেন। দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় ১৪০ কেজি ভার তুলে তিনি কমনওয়েলথ গেমস রেকর্ড গড়েন। তৃতীয় প্রচেষ্টায় ১৪৩ কেজি ভার তুলে নিজের গেমস রেকর্ড আরও বাড়িয়ে নেন অচিন্ত্য।

আরও পড়ুন: বাংলার প্রথম অ্যাথলিট হিসেবে গেমসে সোনা জিতে রেকর্ড হাওড়ার অচিন্ত্যর

স্ন্যাচে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মালয়েশিয়ার এরি হিদায়াত মহম্মদের থেকে ৫ কেজির ব্যবধান তৈরি করেন অচিন্ত্য। হিদায়াত স্ন্যাচে ১৩৮ কেজি ভার তোলেন। ১৩৫ কেজি ভার তুলেছেন কানাডার শাদ ডারসিগনি।

ক্লিন অ্যান্ড জার্কের প্রথম প্রচেষ্টায় অতিন্ত্য ১৬৬ কেজি ভার তোলেন এবং সেই সঙ্গে সার্বিকভাবে গেমস রেকর্ড গড়ে ফেলেন। তিনি দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় ১৭০ কেজি ভার তোলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। অচিন্ত্য তৃতীয় প্রচেষ্টায় ১৭০ কেজি ভার তুলতে সক্ষম হন। সুতরাং, স্ন্যাচ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে ৩১৩ কেজি ভার তুলে বাজিমাত করেন ভারতীয় তারকা, যা সার্বিকভাবে কমনওয়েলথ গেমস রেকর্ড।

এই ইভেন্টে অচিন্ত্যর থেকে ১০ কেজি পিছিয়ে থেকে রুপো জেতেন হিদায়াত মহম্মদ (৩০৩ কোজি)। সার্বিকভাবে ২৯৮ কেজি ভার তুলে ব্রোঞ্জ জেতেন ডারসিগনি।

উল্লেখ্য, শনিবার বার্মিংহ্যাম কমনওয়েলথ গেমসের দ্বিতীয় দিনে মেয়েদের ৪৯ কেজি বিভাগে গেমস রেকর্ড গড়ে সোনা জেতেন মীরাবাই চানু। মেয়েদের ৫৫ কেজি বিভাগে বিন্দিয়ারানি দেবী রুপো জেতেন। ছেলেদের ৫৫ কেজি বিভাগে রুপো জেতেন সঙ্কেত সরগর। ছেলেদের ৬১ কেজি বিভাগে ব্রোঞ্জ জেতেন গুরুরাজা পূজারি। এবার তৃতীয় দিনে ছেলেদের ৬৭ ও ৭৩ কেজি বিভাগে গেমস রেকর্ড করে সোনা জিতলেন যথাক্রমে জেরেমি লালরিনুঙ্গা ও অচিন্ত্য শিউলি।

বন্ধ করুন