বাংলা নিউজ > ময়দান > 'পাক খেলোয়াড়রা নিজেদের কথা ভাবতে ব্যস্ত' হার্দিকের থেকে শিখতে বললেন কানেরিয়া
হার্দিক পান্ডিয়া{ (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
হার্দিক পান্ডিয়া{ (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

'পাক খেলোয়াড়রা নিজেদের কথা ভাবতে ব্যস্ত' হার্দিকের থেকে শিখতে বললেন কানেরিয়া

হার্দিকের থেকে শিক্ষা নেওয়ার পরামর্শ দিলেন পাকিস্তানের ক্রিকেটার।

শুভব্রত মুখার্জি

পাকিস্তান ক্রিকেটের দুই বিতর্কিত ও বর্ণময় চরিত্র শোয়েব আখতার এবং দানিশ কানেরিয়া। তাঁরা কোনও কথা বললেই তা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়। এবার ভারতীয় তথা বিশ্ব ক্রিকেটের এই মুহূর্তের সেরা অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে তুলনা করে পাকিস্তান ক্রিকেটারদের উদ্দেশে তাঁর মন্তব্য বেশ আলোড়ন পড়ে গিয়েছে।

দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটার গড়াপেটার জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন - মহম্মদ আমির ও দানিশ কানেরিয়া। কানেরিয়া ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত হলেও আমিরকে ক্রিকেটে ফেরার সুযোগ করে দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। এই নিয়ে বারবার প্রশ্ন তুলেছেন দানিশ কানেরিয়া। হিন্দু বলেই পাকিস্তানে তাঁকে এত যন্ত্রণা সহ্য করতে হচ্ছে বলে অভিযোগও করেন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরার অনুমতি দেওয়ার ব্যাপারে দাবি তোলেন তিনি।

এবার সুযোগ বুঝে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের একহাত নিলেন তিনি। এই মুহূর্তে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজ চলছে। সেখানে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে একদিন ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে অসাধারণ খেলেছিলেন হার্দিক পান্ডিয়া। ফলে টি-টোয়েন্টিতে তিনি সিরিজ সেরা হিসেবে নির্বাচিত হন। পান্ডিয়া তাঁর সেই সিরিজ সেরার ট্রফি ভারতের তরুণ পেসার তথা সানরাইজার্স হায়দরাবাদের নয়া তারকা এন নটরাজনের হাতে তুলে দেন। কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর) তারকা বরুণ চক্রবর্তী চোটের জন্য অস্ট্রেলিয়া সফরে যেতে পারেননি। তাঁর জায়গায় দলে জায়গা পান টি নটরাজন। তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে অসাধারণ বোলিং করেন তিনি। ডেথ ওভারে নটরাজনের বোলিং নজর কাড়ে বিশেষজ্ঞদের। হার্দিক বলেন, 'নটরাজন, তুমি এই সিরিজে দুর্দান্ত খেলেছ। কঠিন পরিস্থিতিতে ভারতের হয়ে অভিষেকেই তুমি যা খেলেছ, তাতে তোমার প্রতিভা এবং কঠোর পরিশ্রমের মাত্রা ফুটে উঠেছে। আমার তরফ থেকে তুমি এই সিরিজ সেরা পুরস্কারের যোগ্য। জয়ের জন্য ভারতীয় দলকে অভিনন্দন।'

সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পান্ডিয়া ও নটরাজনের ছবি শেয়ার করে কানেরিয়া লিখেছেন, 'এর চেয়ে ভালো ছবি আর হতে পারে না। পান্ডিয়া হৃদয়ও জিতেছে। নটরাজনের মতো জুনিয়ররা, সিনিয়রের এমন উদ্যোগে অনুপ্রেরণা পাবেন। পাকিস্তানের কোনও খেলোয়াড় কখনও এমনটা করেন না। তাঁরা নিজেদের কথা ভাবতেই ব্যস্ত।' কানেরিয়ার এই মন্তব্যে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গেছে পাকিস্তানে। অনেকে অবশ্য তাকে সমর্থনও করেছেন। আবার কেউ কেউ তাকে 'গদ্দার' বলে সম্বোধন করতেও ছাড়েননি।

বন্ধ করুন