বাংলা নিউজ > ময়দান > DC vs KXIP: ওপেনে লোকেশের সঙ্গে ধাওয়ানের দ্বৈরথ, কিপিংয়ে চ্যালেঞ্জ পন্তকে
দিল্লি ক্যাপিটালস ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের লোগো। ছবি- আইপিএল।
দিল্লি ক্যাপিটালস ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের লোগো। ছবি- আইপিএল।

DC vs KXIP: ওপেনে লোকেশের সঙ্গে ধাওয়ানের দ্বৈরথ, কিপিংয়ে চ্যালেঞ্জ পন্তকে

  • টিম ইন্ডিয়ার একঝাঁক তারকা IPL 2020-র দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামছেন পরস্পরের বিরুদ্ধে।

আটটি বর্তমান দলের মধ্যে যে তিনটি দল এখনও আইপিএল ট্রফি জেতেনি, তাদের মধ্যে দু'টি দল আইপিএলের দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামছে দুবাইয়ে। গত দু'টি মরশুমে আইপিএলের শুরুটা দিল্লির তুলনায় ভালো হয়েছে পঞ্জাবের। যদিও দু'দলের কেউই শেষমেশ খেতাবি লড়াইয়ের দিকে এগিয়ে যেতে পারেনি। এবার আমিরশাহিতে ছবিটা বদলে দিতে বদ্ধপরিকর দিল্লি ক্যাপিটালস ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাব।

পঞ্জাবে লোকেশ রাহুল ও মায়াঙ্ক আগরওয়ালের মতো টিম ইন্ডিয়ার তারকা ক্রিকেটারদের উপস্থিতি নজর কাড়লেও কোনও অংশ পিছিয়ে নেই দিল্লি। বরং দিল্লির ইন্ডিয়ান ব্রিগেড আটটি ফ্র্যাঞ্চাইজির মধ্যে সবথেকে শক্তিশালী। পরিস্থিতি এমনই যে, বিদেশি তারকাদের উপর নির্ভর না করেও অনায়াসে মাঠে দল নামাতে পারে ক্যাপিটালস। পঞ্জাবকে অবশ্য বাড়তি সমীহ এনে দিচ্ছে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের উপস্থিতি।

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট ও লাইভ স্কোর জানতে ক্লিক করুন এখানে।)

দিল্লির সম্ভাব্য প্রথম একাদশ: পৃথ্বী শ, শিখর ধাওয়ান, অজিঙ্কা রাহানে, শ্রেয়স আইয়ার (ক্যাপ্টেন), ঋষভ পন্ত (উইকেটকিপার), মার্কাস স্টোইনিস/অ্যালেক্সি ক্যারি, অক্ষর প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কাগিসো রাবাদা, সন্দীপ লামিছানে ও ইশান্ত শর্মা/মোহিত শর্মা/আবেশ খান।

পঞ্জাবের সম্ভাব্য প্রথম একাদশ: লোকেশ রাহুল (ক্যাপ্টেন ও উইকেটকিপার), মায়াঙ্ক আগরওয়াল, ক্রিস গেইল/নিকোলাস পুরান, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, সরফরাজ খান, দীপক হুডা/মনদীপ সিং/করুণ নায়ার, কৃষ্ণাপ্পা গৌতম, ক্রিস জর্ডন/শেল্ডন কটরেল, রবি বিষ্ণোই, মহম্মদ শামি ও মুজিব-উর-রহমান।

উল্লেখযোগ্য তথ্য: দুবাইয়ে আগে অথবা পরে ব্যাট করে হার-জিতের পরিসংখ্যান বিশেষ প্রভাব ফেলবে না ফ্র্যাঞ্চাইজিদের গেম প্ল্যান তৈরিতে। কেননা, ২০১৮ থেকে এখানে ৫১টি টি-২০ খেলা হয়েছে। আগে ব্যাট করা দল জিতেছে ২৫টি ম্যাচে। ২৬টি ম্যাচে জিতেছে পরে ব্যাট করা দল।

এই মাঠে প্রথম ইনিংসে গড়ে রান ওঠে ১৫২। স্কোর বোর্ডে ১৭০ রানের বেশি তুলতে পারলে জয়ের সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে।

পেসার ও স্পিনার, উভয় বোলাররাই প্রায় সমান হারে উইকেট তুলেছেন দুবাইয়ে। তবে স্পিনাররা তুলনায় কৃপণ বোলিং করেন এই মাঠে।

বন্ধ করুন