বাংলা নিউজ > ময়দান > আমি সবকটা ম্যাচ খেলতে পারলে তবেই দলে নেবেন, নির্বাচকদের কেন এমন বলেছিলেন সেহওয়াগ
ভারতের প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সেহওয়াগ

আমি সবকটা ম্যাচ খেলতে পারলে তবেই দলে নেবেন, নির্বাচকদের কেন এমন বলেছিলেন সেহওয়াগ

  • এরপর ধোনির সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেন শ্রীকান্ত। ধোনি আমাকে বলেছিলেন, ‘বীরু পা আপ সারে ম্যাচ খেলেঙ্গে।’ তারপরে, আমি অনেক ক্রিকেট খেলেছি কিন্তু এই গল্পটি কখনও কারও সাথে শেয়ার করিনি। এশিয়া কাপে, যেখানে পাকিস্তান এবং বাংলাদেশও ছিল, সেহওয়াগ দুটি অর্ধশতক হাঁকিয়েছিলেন এবং একটি দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করেছিলেন।

ভারতের প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সেহওয়াগ একটি না শোনা গল্প জানালেন। যখন তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে বিরাট কোহলি কীভাবে তার খারাপ ফর্ম কাটিয়ে উঠবে। আসলে বীরুর কাছে প্রশ্ন ছিল সমালোচনার মুখে থাকা কোহলির বর্তমান পরিস্থিতিতে কেমন প্রতিক্রিয়া দেখান উচিত? জবাবে, বীরেন্দ্র সেহওয়াগ বলেন যে তিনিও তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন। তখন তার মন নেতিবাচকতায় ভরে গিয়েছিল। সেখান থেকে তিনি কীভাবে নিজেকে তুলে ধরেছিলেন সাটাই জানিয়েছিলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। 

এই পুরো ঘটনাটি ঘটেছিল ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ ব্যাঙ্ক ট্রাই-সিরিজের সময়। যখন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি একাদশ থেকে বাদ দিয়েছিলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগকে। তারপর প্রাক্তন ব্যাটসম্যান একদিনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার মন তৈরি করেছিলেন। কিন্তু কিংবদন্তি ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর তাকে এমন করতে মানা করেন এবং তারপরে বীরুর অবসরের চিন্তাভাবনা বদলে যায়।

টুর্নামেন্টের প্রথম চার ম্যাচে একটিও হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেননি বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। তখন দল থেকে তাকে বাদ দিয়েছিলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। মাহি টপ এবং মিডল অর্ডারে রোহিত শর্মা, গৌতম গম্ভীর এবং রবিন উথাপ্পাকে প্রতিস্থাপন করেন এবং ফিনিশিং দায়িত্বের জন্য যুবরাজ সিংকে তার দলে রাখেন। 

তর্কাতীতভাবে, এই ঘটনাটি দিল্লির প্রাক্তন বিস্ফোরক ওপেনারকে অস্থির করে তুলেছিল। বীরেন্দ্র সেহওয়াগ বলেছিলেন যে তিনি সচিন তেন্ডুলকরের পরামর্শ অনুসরণ করেছিলেন। সেই সময় বীরেন্দ্র সেহওয়াগ তৎকালীন প্রধান নির্বাচক কৃষ্ণমাচারী শ্রীকান্তের সঙ্গেও কথা বলেন। বীরেন্দ্র সেহওয়াগ বলেন, ‘শ্রীকান্ত আমাকে বললেন,  ‘তুমি কী করতে চাও?’ আমি উত্তর দিয়েছিলাম আমি ভালো ফর্মে আছি তবুও আমি নির্বাচিত হইনি, তাই আমার আর কী করা উচিত। আপনি আমাকে তখনই বেছে নেবেন যখন আপনি আমাকে সব ম্যাচে সুযোগ দিতে পারবেন, যদি তা করতে না পারেন তাহলে নির্বাচন করবেন না। এরপর ধোনির সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেন শ্রীকান্ত। ধোনি আমাকে বলেছিলেন, ‘বীরু পা আপ সারে ম্যাচ খেলেঙ্গে।’ তারপরে, আমি অনেক ক্রিকেট খেলেছি কিন্তু এই গল্পটি কখনও কারও সাথে শেয়ার করিনি। এশিয়া কাপে, যেখানে পাকিস্তান এবং বাংলাদেশও ছিল, সেহওয়াগ দুটি অর্ধশতক হাঁকিয়েছিলেন এবং একটি দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করেছিলেন। ফাইনালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভারত হেরে গেলেও এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি সেহওয়াগকে।

বন্ধ করুন