বাংলা নিউজ > ময়দান > 'দিয়েগো চিরন্তন', 'বিশ্বের সর্বকালের সেরা'-র প্রয়াণে ভেঙে পড়লেন মেসি
২০১০ সালের বিশ্বকাপে অনুশীলনের পর দিয়েগো মারাদোনা এবং লিওনেল মেসি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
২০১০ সালের বিশ্বকাপে অনুশীলনের পর দিয়েগো মারাদোনা এবং লিওনেল মেসি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

'দিয়েগো চিরন্তন', 'বিশ্বের সর্বকালের সেরা'-র প্রয়াণে ভেঙে পড়লেন মেসি

  • ফুটবলের দুই রাজপুত্রের মধ্যে তুলনায় চিরকাল চলে এসেছে ড্রিবলের ভঙ্গিমা, বিখ্যাত ১০ নম্বর জার্সি ।

দু'জনের মধ্যে কত মিল। সেই অসামান্য প্রতিভা, দুরন্ত ড্রিবলিং। একইরকম ছোটো চেহারার সামনে দাঁড়াতে পারেনি বড়সড় প্রতিবন্ধকতাও। বশ্যতা স্বীকার করেছেন নামভারী ডিফেন্ডাররা। আর্জেন্টিনার ফুটবলের যে ব্যাটন হাতে নিয়ে দৌড়ানো শুরু করেছিলেন দিয়েগো আর্মান্দা মারাদোনা, সেই ব্যাটন নিয়ে এখন দৌড়াচ্ছেন লিওনেল মেসি। সেই মারাদোনার প্রয়াণে গভীরভাবে শোকপ্রকাশ করলেন আর্জেন্টিনার বর্তমান অধিনায়ক।

ইনস্টাগ্রামে মারাদোনার সঙ্গে দুটি ছবি পোস্ট করে মেসি লেখেন, 'আর্জেন্তিনার প্রত্যেক মানুষ এবং ফুটবলের জন্য অত্যন্ত দুঃখের দিন। উনি আমাদের ছেড়ে গিয়েছেন। কিন্তু উনি আমাদের কখনও ছেড়ে যাবেন না। দিয়েগো চিরন্তন। আমি তাঁর সঙ্গে যেসব সুন্দর মুহূর্ত কাটিয়েছি, তা মনের মধ্যে রেখে দেব। তাঁর পরিবার এবং বন্ধুবান্ধবকে সমবেদনা জানাচ্ছি। শান্তিতে ঘুমাও।'

মারাদোনা ও মেসি - বিশ্বের অন্যতম সর্বকালের সেরা দুই খেলোয়াড়ের মধ্যে কে সেরা, তা নিয়ে বিতর্ক কোনওদিন থামেনি। ফুটবলের দুই রাজপুত্রের মধ্যে তুলনায় চিরকাল চলে এসেছে ড্রিবলের ভঙ্গিমা, বিখ্যাত ১০ নম্বর জার্সি । তবে মেসি নিজে সেই দৌড়ে কোনওদিন সামিত হতে চাননি। বরং মারাদোনাকেই বিশ্বের সর্বকালের সেরার তকমা দিয়েছিলেন।

২০১০ সালে মারাদোনাকে নিয়ে একটি প্রশ্নের জবাবে মেসি বলেছিলেন, 'লাখ লাখ বছর খেললেও মারাদোনার ধারেকাছেও কোনওদিন আসতে পারব না আমি। কোনওদিন আমি চাইও না। উনি সর্বকালের সেরা।' সেই মারাদোনার কোচিংয়েও খেলেছিলেন মেসি। কিন্তু ২০১০ সালের বিশ্বকাপে দুই মহাতারকা সেই জুটি সফল হয়নি। দক্ষিণ আফ্রিকায় কোয়ার্টার-ফাইনালে জার্মানির কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়েছিল দ্রোণাচার্য মারাদোনা এবং শিষ্য মেসিকে।

বন্ধ করুন