বাংলা নিউজ > ময়দান > চোখের জলে শেষ বিদায়, বাবা-মায়ের সমাধির পাশেই সমাহিত দিয়েগো মারাদোনা
মারাদোনার কফিন। ছবি- স্ক্রিনগ্র্যাব।
মারাদোনার কফিন। ছবি- স্ক্রিনগ্র্যাব।

চোখের জলে শেষ বিদায়, বাবা-মায়ের সমাধির পাশেই সমাহিত দিয়েগো মারাদোনা

  • অজানা থেকে গেল দিয়েগোর মৃত্যু নিয়ে বহু প্রশ্নের উত্তর।

বুয়েনস আয়ার্সের রাস্তায় অগুনতি ভক্তের ঢল। শেষ শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ পেলেন না অনেকেই। কড়া নিরাপত্তায় হাতে গোনা কয়েকজনের উপস্থিতিতে সমাহিত হল দিয়েগো মারাদোনার পার্থিব শরীর। মারাদোনা রয়ে গেলেন অনুরাগীদের মনে।

প্রেসিডেন্টাল প্যালেসে জাতীয় পতাকা ও আর্জেন্তিনার জার্সিতে মোড়া মারাদোনার কফিন রাখা ছিল ভক্তদের শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য। সেখানে থেকে শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকাল পাঁচটা নাগাদ মারাদোনার কফিন নিয়ে কনভয় রওনা দেয় বুয়েনস আয়ার্সের প্রাণকেন্দ্র থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরের বেইয়া বিস্তা গোরস্থানের উদ্দেশ্যে। কনভয় পৌঁছতে সময় লাগে ঘণ্টা দু'য়েক।

কনভয়ের পিছনে হাজার হাজার মানুষ মারাদোনার শেষ যাত্রায় অংশ নেন। যদিও গোরস্থানে ঢোকার অনুমতি ছিল না কারও। নিরাপত্তারক্ষীরা আগে থেকেই ঘিরে রেখেছিলেন গোরস্থান। পরিবারের লোকজন ও এজেন্ট-সহ জনা তিরিশ মানুষ মারাদোনার কফিন নিয়ে গোরস্থানে প্রবেশ করেন। সেখানে বাবা-মায়ের সামধির পাশেই সমাহিত করা হয় দিয়েগো মারাদোনাকে।

মারাদোনার শেষকৃত্যের পরেও তাঁর মৃত্যু নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর খোঁজা চলছে। বিশেষ করে মৃত্যুর সময় নিয়ে। প্রয়াত ফুটবলারের আইনজীবীর দাবি, শেষ ১২ ঘণ্টা কার্যত বিছানায় পড়ে ছিলেন মারাদোনা।

মারাদোনার এজেন্টও স্পষ্ট জানিয়েছেন যে, শেষ জীবনে কিংবদন্তি ফুটবলার একাকীত্বে ভুগতেন। তাঁকে সঙ্গ দেওয়ার মতো কেউই ছিলেন না তাঁর পাশে।

বন্ধ করুন