বাংলা নিউজ > ময়দান > অস্ট্রেলিয়া সফরের সূচী নিয়ে জটিলতা, ভারতের অনুরোধ মানা উচিত নয়, বললেন বর্ডার
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

অস্ট্রেলিয়া সফরের সূচী নিয়ে জটিলতা, ভারতের অনুরোধ মানা উচিত নয়, বললেন বর্ডার

বছর শেষে অস্ট্রেলিয়ায় যাচ্ছে ভারত। 

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজ খেলেই করোনা পরবর্তীতে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ২২ গজে ফিরতে চলেছে ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দল। মরু প্রদেশে আইপিএল চলাকালীন বছর শেষে অজিভূমে অস্ট্রেলিয়া-ভারত সিরিজের সূচি ঘোষণার অপেক্ষা মাত্র। দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে আলোচনা হলেও চূড়ান্ত সূচি এখনও প্রকাশ করেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। আর এখানেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক।

সূত্রের খবর অনুযায়ী ব্রিসবেনে প্রথম টেস্টের বদলে অস্ট্রেলিয়া-ভারত প্রথম টেস্ট শুরু হবে ১৭ ডিসেম্বর অ্যাডিলেডে। এছাড়া মেলবোর্ডে বক্সিং ডে টেস্টের পর সিডনিতে তৃতীয় টেস্ট শুরু হবে কয়েকদিন পরে। পুরনো রীতি অনুযায়ী বক্সিং ডে টেস্টের পরে নিউইয়ার টেস্ট প্রতিবছর অজিরা খেলে তেসরা জানুয়ারি।তবে বিসিসিআই চাইছে ক্রিকেটারদের উপর যাতে চাপ না পড়ে তাই প্রথা ভেঙে এই টেস্ট ৭ ই জানুয়ারি থেকে সিডনিতে শুরু করতে। 

বিসিসিআইয়ের এই 'দাদাগিরির' বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছেন প্রাক অজি তারকা অ্যালেন বর্ডার‌ । প্রসঙ্গত এই সিরিজের ট্রফির নাম হয়েছে তার নাম অনুসারে 'বর্ডার-গাভাস্কার' ট্রফি। বর্ডার জানিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের চাপে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া যেন নিজেদের ঐতিহ্য থেকে সরে না আসে। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ডের কাছে এমন দাবি করেছেন কিংবদন্তি অ্যালান বর্ডার।

বছর শেষে ভারত-অস্ট্রেলিয়া ৪ টেস্টের সিরিজ বর্ডার-গাভাসকর ট্রফি শুরু হবে ১৭ ডিসেম্বর থেকে। ১৭-২১ ডিসেম্বর অ্যাডিলেড ওভালে হবে প্রথম টেস্ট। সিরিজের প্রথম টেস্টই সম্ভবত দিন-রাতের টেস্ট। ২৬-৩০ ডিসেম্বর মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্ট। ৭-১১ জানুয়ারি সিডনিতে তৃতীয় টেস্ট। ১৫-১৯ জানুয়ারি ব্রিসবেনে সিরিজের চতুর্থ টেস্ট। প্রস্তাবিত সূচি বিতর্কের সূত্রপাত করেছে।

 বর্ডারের প্রশ্ন যেখানে ব্রিসবেনে প্রথম টেস্ট শুরু হয় ঐতিহ্য মেনে, সেখানে এবার অ্যাডিলেডে কেন? বক্সিং ডে টেস্টের পর সিডনি টেস্ট শুরু হতে মাঝে এতগুলো দিন কেন বিরতি রাখা হয়েছে? ফক্স স্পোর্টস নিউজ-এ আলোচনায় বর্ডার বলেন 'এই জায়গায় আলোচনা বা দর কষাকষির সুযোগ থাকা উচিত নয় । করোনার কারণে যদি সূচিতে এদিক-ওদিক হয় তাহলে তা ঠিক আছে। কিন্তু বক্সিং ডে টেস্ট আর বছর শুরুর টেস্ট এর মধ্যে অতিরিক্ত কিছুদিন বিরতি না হওয়াই উচিত। ভারতীয়রা কয়েক দিন সময় চেয়েছে বলেই এখানে বদল করা হল, এতে আমার আপত্তি রয়েছে।'

বন্ধ করুন