বাড়ি > ময়দান > দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট ও টি-২০ দলের অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ফ্যাফ ডুপ্লেসি
ফ্যাফ ডুপ্লেসি- ফাইল ছবি (REUTERS)
ফ্যাফ ডুপ্লেসি- ফাইল ছবি (REUTERS)

দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট ও টি-২০ দলের অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ফ্যাফ ডুপ্লেসি

নবীব প্রজন্মের নেতা দরকার দক্ষিণ আফ্রিকার, মনে করেন ফ্যাফ।

অনেক দিন ধরেই ব্যাটে রান নেই। একের পর এক সিরিজ হারছে দক্ষিণ আফ্রিকা। চাপের মুখে অবশেষে অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ফ্যাফ ডুপ্লেসি। আগেই ছেড়েছিলেন ওডিআই ক্যাপটেন্সি। এবার ২০ ওভার ও টেস্টেেও অধিনায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিলেন ডুপ্লেসি।

নিজের ইস্তফাপত্রে ডুপ্লেসি লিখেছেন যে তাঁর এই সিজনটা টেস্ট ও টি-২০ বিশ্বকাপে অধিনায়কত্ব করার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু অনেক সময় নেতাদের আত্মত্যাগ করতে হয় বলে জানান ডুপ্লেসি। অধিনায়কত্ব ছাড়লেও এখনই অবসর নেওয়ার কোনও পরিকল্পনা নেই ৩৫ বছরের খেলোয়াড়ের। তিনি বলেন যে যতদিন দেশের জন্য ভালো পারফরমেন্স করতে পারবেন, ততদিন খেলা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে আছে। তিনি ফিট ও মোটিভেটেড বলেও নিজের ইস্তফাপত্রে লিখেছেন ডুপ্লেসি।

তাঁর কথায় দল নতুন খেলোয়াড়দের সঙ্গে নতুন দিশায় যাচ্ছে। এটাই তাই অধিনায়কত্ব ছাড়ার আদর্শ সময় বলে তিনি মনে করেন। সামনেই প্রোটিয়াদের অজিদের সঙ্গে টি২০ ও ওডিআই সিরিজ। তার আগেই দায়িত্ব ছাড়লেন তিনি।

এই যাত্রা পথ কথনো বন্ধুর, কখনো একাকীত্বের ছিল বলেও জানিয়েছেন ডুপ্লেসি। কিন্তু এই সম্মান তাঁকে মানুষ হিসাবেও বদলে দিয়েছে বলে জানান তিনি। এটি জীবনের অন্যতম একটা শক্ত সিদ্ধান্ত ছিল বলেও জানান ডুপ্লেসি। কিন্তু কুইনটন ডি কককে সবরকমের সাহায্য করবেন বলে জানান ডুপ্লেসি। এবি ডিভিলিয়ার্স দায়িত্ব ছাড়ার পর ২০১৭-র অগস্টে অধিনায়ক হন ডুপ্লেসি।

তাঁর আমলে একের পর এক হার হয়েছে প্রোটিয়াদের। বিশ্বের অন্যতম সেরা দল থেকে মাঝারি সারির দলে পরিণত হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তখনই কেন অধিনায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেননি, সেই সাফাইও দিয়েছেন ডুপ্লেসি। তাঁর কথায়, তখন দল পুরোপুরি আনকোরা। কোচিং স্টাফও নতুন। তখন আমার কাজ ছিল দলকে নিজের পায়ে দাঁড় করানোর। আগামী দিনে দল কি করে এগোবে তার ব্লুপ্রিন্ট তৈরি করা ও ভবিষ্যতের নেতা কারা, সেটি চিহ্নিত করার জন্যই তিনি অধিনায়ক পদে থেকে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন ডুপ্লেসি। নতুন নেতৃত্বের অধীনে তিন ধারার ক্রিকেটেই তিনি খেলতে চান বলে জানিয়েছেন ফ্যাফ ডুপ্লেসি।




বন্ধ করুন