বাড়ি > ময়দান > ISL-এর বিড পেপার তোলার ক্ষেত্রেও অপ্রত্যাশিত প্রতিদ্বন্দ্বী পেল ইস্টবেঙ্গল, মাথা গলাল বিদেশি সংস্থা
আইএসএল ট্রফি। ছবি- আইএসএল।
আইএসএল ট্রফি। ছবি- আইএসএল।

ISL-এর বিড পেপার তোলার ক্ষেত্রেও অপ্রত্যাশিত প্রতিদ্বন্দ্বী পেল ইস্টবেঙ্গল, মাথা গলাল বিদেশি সংস্থা

  • FSDL একটি দলের জন্য বিড ওপেন করেছে এবছর।

আইএসএলের দরজা শেষমেশ খুলবে কিনা, তা নিয়ে দুশ্চিন্তার শেষ ছিল না ইস্টবেঙ্গলের। শেষমেশ এফএসডিএল দরজা খোলার পরেও নিশ্চিন্ত হতে পারল না লাল-হলুদ শিবির। যদিও দুশ্চিন্তায় রাতের ঘুম উড়ে যাওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি কখনই।

আইএসএলের আয়োজক সংস্থা একটি দলের জন্য বিড ওপেন করেছে এবছর। নির্ধারিত ৬টি শহরের (দিল্লি, লুধিয়ানা, আমদাবাদ, কলকাতা, শিলিগুড়ি ও ভোপাল) যে কোনও একটির জন্য বিড জমা দিতে পারবে কোনও দল। সোমবার ও মঙ্গলবার ছিল বিড পেপার তোলার নির্ধারিত দিন। প্রত্যাশা মতোই ইস্টবেঙ্গল ৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে বিড পেপার তোলে। তবে এক্ষেত্রেও অপ্রত্যাশিত এক প্রতিদ্বন্দ্বী তৈরি হয়ে যায় লাল-হলুদ শিবিরের।

শুধু ইস্টবেঙ্গলই নয়, ৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে বিড পেপার তুলেছে আরও একটি সংস্থা। তাও আবার সেটি কোনও ভারতীয় সংস্থা নয়।

প্রাথমিকভাবে শোনা গিয়েছিল আই লিগ দল পঞ্জাব এফসির মালিকানা হাতে থাকা রাউন্ডগ্লাস আইপিএলের জন্য বিড পেপার তুলেছে। পরে জানা যায়, এখবর যথার্থ নয়। পঞ্জাব এফসি নয়, বরং ব্রিটেনের একটি সংস্থা আইএসএল নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তারাই নতুন দলের জন্য বিড পেপার সংগ্রহ করেছে।

বিড পেপার জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর। ইস্টবেঙ্গল নির্ধারিত সময়ের আগেই বিড পেপার জমা দেবে, এটাই স্বাভাবিক। তবে নতুন কোনও সংস্থার পক্ষে এই অল্প সময়ের মধ্যে দল গড়ার প্রক্রিয়া শেষ করে আইএসএল খেলার দাবি জানানো সম্ভব নয়। তাই এটা নিশ্চিত যে, ইস্টবেঙ্গলকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছুঁড়ে দেওয়ার লক্ষ্যে যুক্তরাজ্যের সংস্থা বিড পেপার সংগ্রহ করেনি। বরং ভারতীয় ফুটবলে আগ্রহ রয়েছে এটা বোঝাতেই তারা দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চেয়েছে আইএসএলের।

এও হতে পারে যে, নতুন কোনও দল গড়ে নয়, বরং পুরনো কোনও দলে বিনিয়োগ করে আইএসএলে মাথা গলাতে চায় লন্ডনের সংস্থাটি। যদিও এবার সেটাও সম্ভব নয়। আইএসএল কর্তৃপক্ষ অবশ্য এমন আন্তর্জাতিক সংস্থা টুর্নামেন্ট নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করায় নড়েচড়ে বসেছে।

বন্ধ করুন