লাল-হলুদ ধোঁয়ায় ঢেকেছে গ্যালারি। ছবি- টুইটার।
লাল-হলুদ ধোঁয়ায় ঢেকেছে গ্যালারি। ছবি- টুইটার।

লকডাউনে ঘর গোছাতে তৎপর ইস্টবেঙ্গল, বাগানের ঘর ভাঙতেও

  • লকডাউনের অবসরে নিঃশব্দে দল গুছিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু করে দিয়েছে ময়দানের দলগুলি। যদিও এক্ষেত্রে ইস্টবেঙ্গলের তৎপরতা চোখে পড়ছে বেশি।

লকডাউনের জন্য আপাতত স্থগিত রয়েছে ফুটবল মরশুম। পুনরায় কবে শুরু হবে তাও নিশ্চিত নয়। তবে হাত গুটিয়ে বসে থাকতে রাজি নয় ময়দানের দলগুলি। পড়ে পাওয়া এই অবসরে নিঃশব্দে দল গুছিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু করে দিয়েছে তারা। যদিও এক্ষেত্রে ইস্টবেঙ্গলের তৎপরতা চোখে পড়ছে বেশি।

কদিন আগেই ATK কোচ হাবাস জানিয়েছেন, হোম কোয়ারান্টাইনের অবসরে তিনি নতুন মরশুমের জন্য ফুটবলার খোঁজার দিকে নজর দিয়েছেন। মোহনবাগানের তরফে তেমন কোনও উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না, যেহেতু তারা আগামী মরশুমে ATK-র সঙ্গে জোট বেঁধে ISL খেলবে। তবে আই লিগ হোক অথবা ISL, ইস্টবেঙ্গলকে যেখানেই দেখা যাক না কেন, তারা শক্তিশালী দল গড়ে প্রস্তুত থাকতে চাইছে। লকডাউনের মাঝেই ইস্টবেঙ্গল যাঁদেরকে দলে নেওয়া নিশ্চিত করেছে, বা নেওয়ার জন্য হাত বাড়িয়েছে, এক নজরে দেখে নেওয়া যাক তাঁদের তালিকা...

শঙ্কর রায়: মোহনবাগানের গোলকিপার শঙ্কর রায়কে আসন্ন মরশুমের জন্য দলে নিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। তিন বছরের চুক্তিতে ইস্টবেঙ্গলে যোগ দিচ্ছেন তিনি। জামসেদপুর এফসির প্রস্তাব থাকলেও বাগানের নির্ভরযোগ্য গোলকিপার কলকাতায় থেকে যাওয়াই মনস্থির করেন।

ওমিদ সিং: ভারতীয় বংশোদ্ভূত ইরানের ফুটবলার ওমিদ সিংকে দলে নিল ইস্টবেঙ্গল। ২৭ বছর বয়সি ওমিদ উইঙ্গার হলেও অন্য পজিশনেও খেলতে স্বচ্ছন্দ। তিনি ভারতের হয়ে খেলার জন্যও আবেদন জানিয়েছিলেন। তবে ফেডারেশনের নিয়মের ফাঁসে আটকে যাওয়ায় আপাতত তা সম্ভব নয়।

বলবন্ত সিং: সামনের মরশুমের জন্য জাতীয় দলের স্ট্রাইকার বলবন্ত সিংয়ের সঙ্গে চুক্তি সেরে ফেলেছে ইস্টবেঙ্গল। মোহনবাগানের প্রাক্তনী এই পঞ্জাবের ফুটবলার ATK-র হয়ে দু'টি মরশুমে মাঠে নামেন। তিনি ২ বছরের চুক্তিতে যোগ দিলেন লাল-হলুদ শিবিরে।

লালরাম চুলোভা: দু'বছরের চুক্তিতে পড়শি ক্লাব মোহনবাগান থেকে ইস্টবেঙ্গলে ফিরে এলেন চুলোভা। গত বছরই তিনি ইস্টবেঙ্গল ছেড়ে বাগানে যোগ দিয়েছিলেন। তবে মিজো ফুটবলারকে বাগান কোচ কিবু ভিকুনা তেমনভাবে ব্যবহার করেননি।

ভিপি সুহের: বাগানের আর এক নির্ভরযোগ্য তারকা ভিপি সুহেরকে দলে নিতে ঝাঁপিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। কেরলের স্ট্রাইকার লাল-হলুদ শিবিরকে মৌখিক সম্মতি জানিয়েছেন বলে খবর।

এছাড়া, রিয়াল কাশ্মীরের নবীন গুরুং ও ট্রাউয়ের লুয়াংকে দলে নেওয়ার বিষয়টি কার্যত নিশ্চিত করেছে ইস্টবেঙ্গল। ATK-র মিডফিল্ডার শেহনাজ সিং ইস্টবেঙ্গলের জার্সি গায়ে চাপাতে চলেছেন বলেও খবর। কথা চলছে গোকুলাম কেরালার মিডফিল্ডার মহম্মদ ইরশাদ, হায়দরাবাদ এফসির ডিফেন্ডার গুরতেজ সিং, বাগানের আশুতোষ মেহেতা, শেখ সাহিল, বাবা, ওড়িশা এফসির বিক্রমজিৎ সিং, পঞ্জাব এফসির কেভিন লোবোর সঙ্গেও।

বন্ধ করুন