বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গলও’ মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসবাণীতে হাসি ফুটেছে লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে
মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসবাণীতে হাসি ফুটেছে লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে (ছবি:ফেসবুক)
মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসবাণীতে হাসি ফুটেছে লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে (ছবি:ফেসবুক)

‘আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গলও’ মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাসবাণীতে হাসি ফুটেছে লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে

  • ‘চিন্তা নেই। সমস্যা মিটে যাবে। আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গলও।’ ‘খেলা হবে’ প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান থেকে এভাবেই লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘চিন্তা নেই। সমস্যা মিটে যাবে। আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গলও।’ ‘খেলা হবে’ প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান থেকে এভাবেই লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে হাসি ফুটিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আইএসএল-এ খেলার নতুন করে আশার আলো দেখছেন আপামর লাল হলুদ সমর্থকেরা। আসন্ন ফুটবল মরশুমে নতুন করে মশাল জ্বলে ওঠার নতুন স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন ইস্টবেঙ্গলের কর্তারাও। কয়েকদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে ক্লাবের পক্ষ থেকে। 

কিন্তু এর মাঝেই শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক! যদি আবারও ইস্টবেঙ্গল ফুটবলের রাজত্বে ফিরে আসে, তাহলে এর কৃতিত্ব কাদের হবে? কর্তা না সমর্থকদের! যদিও সমস্ত বিষয়টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেখা শোনাতেই হচ্ছে, তবুও ক্লাবকর্তা ও সমর্থকদের মধ্যে এই বিষয় নিয়ে লড়াই শুরু হতেই পারে। কাদের জন্য এমন অসাধ্য সাধন হতে চলেছে। ক্লাব সমর্থকেরা এই বিষয় নিয়ে ক্লাব কর্তাদের কোনও ভাবেই কৃতিত্ব দিতে চাননা। তাদের মতে সমস্ত ঘটনার জন্য তারা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কৃতজ্ঞ। ইতিমধ্যেই ক্লাবের সমর্থকদের তরফ থেকে বলা হয়েছে, ‘গত ১৫ই জুন আমরা দাবী তুলেছিলাম - #DidiBolleiSoiHobeঅবশেষে ২১শে জুলাইয়ের ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের দাবীকে মান্যতা দিয়ে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বললেন।’

লাল হলুদ সমর্থকদের অনেকেই মনে করেন, ক্লাবের পুরানো স্পনশর কোয়েস যখন ক্লাব ছেড়ে দিচ্ছিল সেই সময় ক্লাবের কর্তারা মুখ্যমন্ত্রীর দারস্থ হয়েছিলেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাদের নিরাশ করেননি এবং শ্রী সিমেন্টের মতো স্পনশর এনে দিয়েছিলেন। সেই সময় এসসি ইস্টবেঙ্গল নামে আইএসএল খেলেছিল লাল হলুদ ব্রিগেড। কিন্তু সেই সময় ক্লাব ও লগ্নিকারী সংস্থার চুক্তির জন্য সমস্ত কৃতিত্ব পেয়েছিলেন এক ক্লাবকর্তা। কিন্তু আর নয়। বর্তমানে পরিস্থিতি বদলেছে। ক্লাবের সমর্থকেরা ইতিমধ্যেই ক্লাব কর্তাদের বিরুদ্ধে লড়াই ঘোষণা করে দিয়েছেন। প্রতিদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় কর্তাদের বিরুদ্ধে অঘোষিত লড়াই চালাচ্ছেন ক্লাবের সমর্থকেরা। চুক্তি বিতর্ক নিয়ে ক্লাবকর্তা ও সমর্থকদের মধ্যে অনেকটাই জল ঘোলা হয়েছে। এমন অবস্থাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণার পরে ক্লাবের সমর্থকেরা জানাচ্ছেন তাদের লড়াই অবশেষে ফল পেল। তাঁদের আর্তনাদ কানে গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর, আর তারপরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ঘোষণা করলেন এবং তাদের পাশে দাঁড়ালেন। শেষ পর্যন্ত আইএসএল খেলার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে ইস্টবেঙ্গল।

বন্ধ করুন