বাংলা নিউজ > ময়দান > কমেন্ট্রি থেকে রিটায়ার করেও ভারতের বিরুদ্ধে তোপ জারি হোল্ডিংয়ের
মাইকেল হোল্ডিং। ছবি- রয়টার্স।
মাইকেল হোল্ডিং। ছবি- রয়টার্স।

কমেন্ট্রি থেকে রিটায়ার করেও ভারতের বিরুদ্ধে তোপ জারি হোল্ডিংয়ের

  • হোল্ডিংয়ের মতে আইসিসি বর্তমানে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণের থেকে বেশি আর্থিক উপার্জন নিয়েই ব্যস্ত।

ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা ধারাভাষ্যকারদের মধ্যে অন্যতম হলেন মাইকেল হোল্ডিং। তাঁর বলা কথা, তাঁর অভিমত বরাবরই ক্রিকেটবিশ্ব খুবই মনযোগ সহকারে শোনে। হোল্ডিংও নিজের মতামত জানাতে কোনদিনও পিছপা হননা, তা যতই বলিষ্ঠ এবং শাসকের বিরুদ্ধে হোক না কেন। সম্প্রতি ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফর বাতিলকেও তিনি পশ্চিমী ঔদ্ধত্য বলে দাবি করেন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ইসিবির নিরাপত্তার অজুহাতে পাকিস্তান সফর বাতিল করা নিয়ে চারিদিকে তর্ক-বিতর্ক অব্যাহত। এক মাসেরও কম সময় বাকি থাকায় পাক সফর বাতিল নিয়ে ইসিবির বিরুদ্ধে তোপ দাগেন প্রাক্তন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ফাস্ট বোলার। করোনা পরিস্থিতিতে ভ্যাক্সিনের আগেই পাকিস্তান দল ইংল্যান্ড সফর করার পর ইংল্যান্ডের এই সিরিজ খেলে সামান্য ঋণ শোধ করার সুযোগ ছিল বলে মনে করিয়ে দেন হোল্ডিং। পাকিস্তানের সঙ্গে ইসিবি যা করেছে তা শক্তিশালী ভারতের বিরুদ্ধে করার কোনদিন সাহস হত না তাদের বলে মনে করেন তিনি।

উইন্ডিজ কিংবদন্তী জানান, ‘এই সব বিবৃতির কোন মানে নেই। কেউ সামনে এসে সবটার মুখোমুখি হতে চায় না কারণ ওরা জানে, ওরা যেটা করেছে সেটা ভুল। সেই কারণেই বিবৃতির পিছনে নিজেদের মুখ লুকাচ্ছে। এই ঘটনা আবারও পশ্চিমী ঔদ্ধত্যকে তুলে ধরে, যার সারমর্ম হল, তুমি যাই ভাব না কেন, আমি তোমার সঙ্গে আমার যেমন ইচ্ছা, ঠিক সেইরকম ব্যবহারই করব। ওরা চার দিনের পাকিস্তান সফরেও গেল না।  আমি নিশ্চিত ভারতের সঙ্গে এমনটা করার সাহস দেখাতে পারত না ওরা। কারণ ভারত ধনী এবং শক্তিশালী।’

পাশপাশি বহু বিশেষজ্ঞের মতে আইসিসির বর্তমানে ভূমিকা নিয়েও সওয়াল করেন হোল্ডিং। তাঁর মতে বর্তমানে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আর খেলাকে নিয়ন্ত্রণ করেনা, বরং কয়েকটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করে শুধুমাত্র অর্থ উপার্জনই তাদের আসল লক্ষ্য। ‘আমি বর্তমানে যা সেটা এই ক্রিকেটের দৌলতেই। তবে আমি বর্তমানে যারা এই খেলা পরিচালনা করে তাদের নিয়ে একেবারেই হতাশ। সত্যি বলতে আমি চলে যাওয়ার পর এই খেলা একটুও মিস করব না।’ নিজের অবসর প্রসঙ্গে দাবি করেন তিনি। ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের পাক সফর বাতিল নিয়ে যে জলঘোলা এখনও বেশ কিছুদিন চলবে, তা হোল্ডিংয়ের কথাতেই স্পষ্ট।

বন্ধ করুন