বাংলা নিউজ > ময়দান > বিসিসিআই-এর টেস্ট সিরিজ এগিয়ে আনার অনুরোধের বিষয়টিই অস্বীকার করল ইসিবি
ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ নির্ধারিত সময়েই হবে, জানাল ইসিবি। ছবি: গেটি
ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ নির্ধারিত সময়েই হবে, জানাল ইসিবি। ছবি: গেটি

বিসিসিআই-এর টেস্ট সিরিজ এগিয়ে আনার অনুরোধের বিষয়টিই অস্বীকার করল ইসিবি

  • ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ভারত টেস্ট সিরিজ নিয়ে ইসিবি-র সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করেছে। এবং সিরিজটি যাতে এক সপ্তাহ এগিয়ে আনা যায়, সে বিষয়ে অনুরোধ করেছে। যাতে স্থগিত হয়ে যাওয়া আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলিও ভারত ইংল্যান্ডেই শেষ করতে পারে।

স্থগিত হয়ে যাওয়া আইপিএল শেষ করার জন্য ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের কাছে বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছিল বিসিসিআই। তারা প্রস্তাব দিয়েছিল যদি, ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজ এক সপ্তাহ এগিয়ে আনা যায়, তা হলে সেই ফাঁকে বাকি আইপিএলের ম্যাচগুলি শেষ করতে পারবে বিসিসিআই। কিন্তু ইসিবি স্বাকীরই করল না, বিসিসিআই-এর তরফে এমন কোনও অনুরোধ এসেছিল বলে!

উল্টে ইসিবি-র তরফে বলা হয়, ‘আমরা বিসিসিসিআই-এর সঙ্গে নিয়মিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা করে থাকি। বিশেষত এই কোভিড ১৯ মোকাবিলা নিয়ে বহু কথা হয়। তবে আমাদের কাছে সূচি বদলানোর জন্য সরকারি ভাবে কোনও অনুরোধ করা হয়নি। পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য যে সময় নির্ধারিত ছিল, সেই সূচি মেনেই হবে।’

ভারত আগে ১৮-২২ জুন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলবে সাউদাম্পটনে। এর পরে ৪ অগস্ট থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ চলবে। প্রথম টেস্ট হবে নটিংহ্যামে। আর শেষ টেস্ট হওয়ার কথা ওল্ড ট্রাফোর্ডে।

তবে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ভারত টেস্ট সিরিজ নিয়ে ইসিবি-র সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করেছে। এবং সিরিজটি যাতে এক সপ্তাহ এগিয়ে আনা যায়, সে বিষয়ে অনুরোধ করেছে। যাতে স্থগিত হয়ে যাওয়া আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলিও ভারত ইংল্যান্ডেই শেষ করতে পারে। 

আসলে আইপিএল নিয়ে মহা সমস্যায় পড়েছে বিসিসিআই। করোনার জেরে আইপিএল স্থগিত করে দিতে বাধ্য হয়েছে তারা। কিন্তু এখন আইপিএলের বাকি ম্যাচ শেষ করার জন্য ব্যস্ত সূচির মাঝে সময় বের করে উঠতে পারছে না বিসিসিআই।

এর আগে কাউন্টি ক্লাবগুলি আইপিএলের আয়োজন করার বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছিল। কেভিন পিটারসেনও ইংল্যান্ডে আইপিএলের বাকি ম্যাচ আয়োজনের পরামর্শ দিয়েছিলেন। তবে ইসিবি কী করবেন, এখন সবটাই তাদের হাতে!

বন্ধ করুন