বাংলা নিউজ > ময়দান > সচিন বুদ্ধিমান আর বীরু পাগল- ওপেনিং পার্টনার হিসেবে কাকে পছন্দ? স্পষ্টবাদী সৌরভ

সচিন বুদ্ধিমান আর বীরু পাগল- ওপেনিং পার্টনার হিসেবে কাকে পছন্দ? স্পষ্টবাদী সৌরভ

সচিন তেন্ডুলকর এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কোন বোলারকে বেশি ভয় পেতেন জানেন? শোয়েব আখতার নন, শ্রীলঙ্কা কিংবদন্তি স্পিনারই নাকি সৌরভকে বারবার সমস্যায় ফেলতেন। নিজে এই কথা স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক।

ভারতীয় ক্রিকেটে এক বর্ণময় অধ্যায় রয়েছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং সচিন তেন্ডুলকরের। এই ওপেনিং জুটি ভারতকে বহু সাফল্য এনে দিয়েছেন। পরের দিকে বীরেন্দ্র সেহওয়াগের সঙ্গে বহু ম্যাচে ওপেন করেছেন সৌরভ। তবে কে সেরা ওপেনিং পার্টনার? সচিন নাকি সেহওয়াগ।

সদ্য আবুধাবিতে একটি প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন সৌরভ। প্রথমেই সেই অনুষ্ঠানে সৌরভকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, তিনি বীরেন্দ্র সেহওয়াগ নাকি সচিন- ওপেন করতে নেমে ব্যাটিংটা কার সঙ্গে বেশি উপভোগ করতেন? এই বিষয়ে সৌরভ দু'বার না ভেবে নির্দ্বিধায় বলে দেন, ‘সচিনের সঙ্গে ওপেনিং করতে নেমে বেশি ব্যাটিং উপভোগ করতাম। কারণ সচিন ভালো খেলতে সাহায্য করত। সচিন ছিল বুদ্ধিমান আর সেখানে সেওয়াগ ছিল পাগলের মতো।’

আরও পড়ুন: টানা ৫ দিন ধরে ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস, T20 WC-এর ফাইনাল ঘিরে তীব্র অনিশ্চয়তা

এখানেই থেমে থাকেননি সৌরভ। লিটল মাস্টারের কথা তুলে ধরে একটি ঘটনার উল্লেখ করে সৌরভ। যার থেকে সচিনের দৃঢ়তার পরিচয় পাওয়া যায়। ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক বলেন, ‘একটা ম্যাচে ব্যাট করতে নেমে সচিনের পাঁজরে একটি বল লাগে। আমি সেটা নন স্ট্রাইকিং এন্ডে থেকে বুঝতে পেরেছিলাম।বেশ জোরেই বলটি লেগেছিল সচিনের। কিন্তু তার পরেও ওর ব্যাটিং থামেনি। আমি সচিনকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, ও আমায় জানিয়েছিলেন ওর কিছু হয়নি। ম্যাচের পর দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে জানতে পারি, সচিনের পাঁজরে মারাত্মক চোট লেগেছে। এই কারণ গুলির জন্য ও আমার কাছে সব সময় বিশেষ হয়ে রয়েছে।’

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের দুই ওপেনার শক্তি আবার দুর্বলতাও, পেসাররা ভরসা, মিডল অর্ডার যন্ত্রণার

অস্ট্রেলিয়ায় নাকি ইংল্যান্ডে গিয়ে টেস্ট খেলা বেশি কঠিন ছিল? সৌরভের দাবি, অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে টেস্টে খেলা সব চেয়ে বেশি কঠিন। তিনি বলেওছেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে টেস্টে খেলা সব চেয়ে বেশি কঠিন।’ প্রসঙ্গত ইংল্যান্ডের মাটিতে ২০০২ সালে ন্যাটওয়েস্ট কাপ ফাইনালের থেকে ২০০১ সালে কলকাতায় নিজের ঘরের মাঠে তাঁর অধিনায়কত্বে প্রথম সিরিজ জয়কে এগিয়ে রেখেছেন মহারাজ। এই প্রসঙ্গে তাঁর দাবি, ‘২০০১ সালে ঘরের মাঠে সিরিজ জয়ের পর থেকে অবশ্য দলের আত্মবিশ্বাসটাই বদলে গিয়েছিলো।’

কোন বোলার তাঁর গোটা ক্যারিয়ারে সৌরভকে সবচেয়ে বেশি ঝামেলায় ফেলতেন? সৌরভ স্পষ্ট ভাষায় বলে দেন, ‘মুরলিধরন বয়সের সঙ্গে সঙ্গে নিজের বোলিংয়ে সব থেকে বেশি উন্নতি করেছিল। আর ও আমাকে সব চেয়ে বেশি চাপে ফেলত।’

বন্ধ করুন