বাংলা নিউজ > ময়দান > ভারতীয়দের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যে ইয়ন মর্গ্যান ও জোস বাটলারের বিরুদ্ধে তদন্তে নামল ECB
ইংল্যান্ড জার্সি গায়ে ইয়ন মর্গ্যান ও জোস বাটলার। ছবি- আইসিসি।
ইংল্যান্ড জার্সি গায়ে ইয়ন মর্গ্যান ও জোস বাটলার। ছবি- আইসিসি।

ভারতীয়দের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্যে ইয়ন মর্গ্যান ও জোস বাটলারের বিরুদ্ধে তদন্তে নামল ECB

  • অলি রবিনসন, জেমস অ্যান্ডারসনের পর এবার বিতর্ক ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ও সহ-অধিনায়কের পোস্ট ঘিরে।

এ যেন কেঁচো খুঁড়তে কেউটের সন্ধান। সাম্প্রতিক বর্ণ ও লিঙ্গবিদ্বেষী মন্তব্যের জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য নির্বাসিত করা হয়েছে অলি রবিনসনকে। তাঁর পরেই সোরগোল পড়ে গেছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেট মহলে। একের পর এক সামনে আসছে তারকাদের অতীতের বিতর্কিত সব মন্তব্য।

অলি রবিনসনের পর ডম বেস আগেভাগেই বিতর্ক এড়াতে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট মুছে দিয়েছেন। তবে স্টুয়ার্ট ব্রডকে সমকামী বলা টুইট মুছে দিয়েও বিতর্কের হাত থেকে রেহাই পাননি মতান্তরে ইংল্যান্ডের সর্বকালের সেরা ফাস্ট বোলার জেমস অ্যান্ডারসন। এবার তালিকায় জুড়ছে আরও তারকার নাম। ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান ও তাঁর সহ-অধিনায়ক জোস বাটলারের বিরুদ্ধে এবার তদন্তে নামল ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড।

ইংল্যান্ডের দুই তারকা ক্রিকেটারের সম্ভবত ভারতীয়দের ব্যঙ্গ করে একাধিক টুইট নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। দুই জনেরই একাধিক টুইটে স্যার শব্দের প্রয়োগ, বাটলারের ইচ্ছাকৃতভাবে লেখা ভুলভাল টুইট ঘিরেই যত জল্পনা। রবিনসনের পর দলের সেরা দুই তারকাদের বিরুদ্ধে ইসিবি কোন পদক্ষেপ নেবে কিনা সেই নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন নেটাগরিকদের একাংশ।

সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর বিষয়ে ইসিবির এক মুখপাত্র জানান, ‘গত সপ্তাহে ওই বৈষম্যমূলক টুইটগুলির বিষয়ে জানার পর থেকেই আরও অন্যান্য ক্রিকেটারদের পোস্ট ঘিরে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। যেহেতু সাম্প্রতিক ঘটনার পরিপ্রক্ষিতে বোঝাই যাচ্ছে যে একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনার থেকে এটি অনেক বড় ও গভীর। সেই কারণেই বোর্ডের তরফে সঠিক পদ্ধতিতে অতীতের সোশ্যাল মিডিয়ার কার্যকলাপ খতিয়ে দেখা হবে এবং তার পরেই বোর্ড কোন মন্তব্য করবে।’

 

বন্ধ করুন