বাংলা নিউজ > ময়দান > EPL: ঘরের মাঠে টটেনহ্যামের কাছে লজ্জার হার ম্যাঞ্চেস্টারের

শুভব্রত মুখার্জি

ফুটবল বিশ্বের প্রথম সারির ক্লাবগুলির মধ্যে অন্যতম ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ও বার্সেলোনার। বার্সা এবছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্নের কাছে ৮ গোলের লজ্জার হারের সম্মুখীন হয়েছে। এবার প্রিমিয়র লিগে ম্যান ইউ চরম লজ্জার হারের সম্মুখীন হল। কোনরকমে 'সেভেন আপ' বাঁচাল তারা।

৬-১ গোলের লজ্জার হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হয় ওলে গানারের দলকে। ঘরের মাঠে টটেনহ্যামের হাতে এভাবে বিধ্বস্ত হতে হবে, তা বোধহয় স্বপ্নেও ভাবেননি কোনও ম্যান ইউ সমর্থক।নিজের প্রাক্তন ক্লাবের বিপক্ষেই কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় জয় পেলেন হটস্পার কোচ হোসে মোরিনহো।

ম্যান ইউ কোচের পদ থেকে ছাঁটাই হওয়ার পর এই প্রথম ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে পা রাখলেন মরিনহো। ম্যাচের স্কোরশিটটা সুখকর হল না ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের। প্রথম গোলটা করে তারা। ম্যাচের মাত্র ২ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে ১-০ লিড এনে দেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ। ম্যাচের ৪ মিনিটের মাথায় একক প্রচেষ্টায় গোল করে ডম্বেলে ১-১ করেন। মিনিট তিনেক পরে লিড নেয় টটেনহ্যাম। হ্যারি কেনের পাস থেকে গোল করেন সন হিয়ং মিন। ম্যাচের ৩০ মিনিটের মাথায় গোল করেন হ্যারি কেন। ৩৭ মিনিটে মিনিটে ফের গোল করেন সন হিয়ুং মিন। ৪-১ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় টটেনহ্যাম।

বিরতি থেকে ফিরেও আক্রমণাত্মক খেলা জারি রাখে টটেনহ্যান। ৫১ মিনিটে অরিয়ার গোল করে স্কোর-লাইন ৫-১ করেন। ৭৯ মিনিটে অধিনায়ক হ্যারি কেন ফের গোল করে ম্যান ইউয়ের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন। পেনাল্টি থেকে করা তাঁর গোলে ৬-১ ব্যবধানে লিড নেয় টটেনহ্যাম। প্রসঙ্গত, এদিন ২৮ মিনিটে মার্শাল লাল কার্ড দেখার পরে বাকি ম্যাচ ১০ জনে খেলতে হয় ম্যাঞ্চেস্টারকে।

বন্ধ করুন