বাংলা নিউজ > ময়দান > ইডেনে ব্যাট হাতে অনবদ্য সূর্যকুমার, ব্যাটিং দেখে বাকরুদ্ধ সতীর্থ
সূর্যকুমার যাদব (AFP)

ইডেনে ব্যাট হাতে অনবদ্য সূর্যকুমার, ব্যাটিং দেখে বাকরুদ্ধ সতীর্থ

  • সূর্যকুমার যাদব এবং ভেঙ্কটেশ আইয়ার জুটিতে রবিবার ইডেনে ৯১ রান যোগ করেন

শুভব্রত মুখার্জি: রবিবাসরীয় ইডেনের উত্তাপ যেন কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছিলেন সূর্যকুমার যাদব। ইডেনের হাজার তিরিশেক দর্শক সাক্ষী ছিলেন অসাধারণ স্ট্রোক প্লে'র। বিপক্ষ বোলিংকে কার্যত ক্লাবস্তরে যেন নামিয়ে এনেছিল তার ব্যাটিং। হাটু মুড়ে বসে পেসারকে সুইপ‌ হোক কিংবা স্পিনারকে ইনফিল্ডের উপর দিয়ে লফটেড লট খেলে বাউন্ডারিতে পাঠানো সবেতাই তার মুন্সিয়ানায ছাপ দেখিয়েছেন সূর্যকুমার। দর্শকরা যেমন তার ব্যাটিং তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করেছেন তেমনভাবে নন স্ট্রাইকারে দাঁড়িয়ে তার ব্যাটিং চাক্ষুষ করে কার্যত বাকরুদ্ধ হমে গিমেছেন তার সতীর্থ ভেঙ্কটেশ আইয়ার।

প্রসঙ্গত সূর্যকুমার এবং ভেঙ্কটেশ রবিবার ইডেনে ৮৬ রান করেন ভারতীয় ইনিংসের শেষ পাঁচ ওভারে। যা ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে নজির। এর আগে ২০০৭ সালের টি ২০ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৮০ রান ছিল ভারতের সর্বোচ্চ। সূর্যকুমার যাদব এবং ভেঙ্কটেশ আইয়ার জুটিতে রবিবার ইডেনে ৯১ রান যোগ করেন। বিধ্বংসী ফর্মে ছিলেন সূর্যকুমার। মাত্র ৩১ বলে ৬৫ রান করেন তিনি। সেই ইনিংসকে প্রশংসায় ভরিয়েছেন তাঁর সঙ্গী ভেঙ্কটেশ আইয়ার।

ব্যাট হাতে বিধ্বংসী ছিলেন সূর্যকুমার। তার ইনিংস সাজানো ছিল সাতটি ছয়ে। ম্যাচের পর সতীর্থের দুরন্ত ইনিংস নিয়ে বলতে গিয়ে ভেঙ্কটেশ আইয়ার জানা ‘নিজের ব্যাটিংয়ের থেকেও বেশি উপভোগ করেছি ওর (সূর্যর) ব্যাটিং। জুটিতে অবদান রাখতে পেরে আমা খুশি। ওর প্রতিটি শটেই একটা আলাদা চমক ছিল। প্রতিটা শটের পিছনে একটা ভাবনা ছিল। নন স্ট্রাইকার প্রান্ত থেকে দেখতেও বেশ লাগছিল। যেটা ওকে বাকিদের থেকে আলাদা করেছে। লেগ সাইডের ওপর দিয়ে তুলে যে শটটা মেরেছিল সেটা অনবদ্য। আমাকেও ও ওই শট মারার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়েছে।'

বন্ধ করুন