বাংলা নিউজ > ময়দান > সবাই ভুল ধরিয়েছেন, কেউ ভুল শুধরে দেননি, ঠোঁটকাটা সেহওয়াগ জানালেন অপ্রিয় সত্যিটা
বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। - HT Photo
বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। - HT Photo

সবাই ভুল ধরিয়েছেন, কেউ ভুল শুধরে দেননি, ঠোঁটকাটা সেহওয়াগ জানালেন অপ্রিয় সত্যিটা

  • টিম ইন্ডিয়ার তিন প্রাক্তন তারকা তাঁকে কীভাবে যথাযথ পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করেন, সেটাও জানাতে ভোলেননি বীরু।

'সবাই বলত আমার ফুটওয়ার্কে সমস্যা রয়েছে। তবে কেউ বলেনি সেটা কীভাবে ঠিক করা যায়।' বীরেন্দ্র সেহওয়াগের এই স্বীকারোক্তিতেই সমালোচকদের প্রকৃত স্বরূপ বোঝা যায়। যদিও বীরু এও জানিয়েছেন যে, টিম ইন্ডিয়ার তিন প্রাক্তন তারকার একই পরামর্শ তাঁকে কীভাবে পরিণত হয়ে উঠতে সাহায্য করেছিল।

নিজের সময়ের সবথেকে বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান ছিলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। আগ্রাসী মেজাজ এবং চোখ ও হাতের সামঞ্জস্যই ছিল সেহওয়াগের ব্যাটিংয়ের বৈশিষ্ট্য। টিম ইন্ডিয়ার তারকা ওপেনারের ফুটওয়ার্ক কোনও দিনই ভালো ছিল না। তা সত্ত্বেও টেস্ট কেরিয়ারের বেশিরভাগ সময় ৫০-এর উপরে ব্যাটিং গড় বজায় রেখেছিলেন সেহওয়াগ। একমাত্র ভারতীয় হিসেবে তিনি টেস্টে দু'টি ট্রিপল সেঞ্চুরি করেন পায়ের যথাযথ নড়াচড়া ছাড়াই।

Cricuru app-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সেহওয়াগ বলেন, ‘সবাই বলত আমার পায়ের নড়চড়ায় উন্নতি করা দরকার। এমনটা নয় যে, আমি আমার ফুটওয়ার্কে উন্নতি করতে চাইনি। তবে কেউই বলে দেয়নি, কীভাবে ভুলটা শুধরে নিতে হবে।’

পরক্ষণেই বীরু জানান যে, মনসুল আলি খান পতৌদি, সুনীল গাভাসকর ও কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্তের পরামর্শ তাঁকে সাহায্য করেছিল। সেহওয়াগের কথায়, ‘মনসুর আলি খান পতৌদি, সুনীল গাভাসকর ও কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত পরামর্শ দিয়েছিলেন লেগ-স্টাম্পের বদলে মিডল স্টাম্পে দাঁড়াতে। এটা আমাকে ভীষণ সাহায্য করে।’

বন্ধ করুন