বাংলা নিউজ > ময়দান > ইস্টবেঙ্গলে খুশির হাওয়া, কাটল ইনভেস্টর-ক্লাব জট
ফাইল ছবি 
ফাইল ছবি 

ইস্টবেঙ্গলে খুশির হাওয়া, কাটল ইনভেস্টর-ক্লাব জট

  • এফএসডিএলের মধ্যস্থতায় সমস্যা মিটল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের

শুভব্রত মুখার্জি

২ দিনের সময়সীমা দিয়েছিল ইনভেস্টর গোষ্ঠী। দুদিনের মধ্যে সবকিছু মিটমাট না করে দিলে যে তাদের পক্ষে ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গ করা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবে না, তাও স্পষ্ট করা হয়। যখন মনে হচ্ছিল, তা হলে কি আইএসএলে তীরে এসে তরী ডুববে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের? ঠিক তখনই সমর্থকদের মুখের হাসি ফিরিয়ে এল সুখবর।

বলা চলে, এফএসডিএলের মধ্যস্থতায় সমস্যা মিটল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের। সরকারিভাবে এই ঘোষণা অবশ্য এখনও বাকি আছে ক্লাবের ইনভেস্টর শ্রী সিমেন্টের তরফে । ইনভেস্টরের দেওয়া টার্মশিটের অন্যান্য সব শর্ত কর্তারা মেনে নিয়েছেন। অপরদিকে ক্লাবের সদস্যদের নিয়ন্ত্রণের অধিকারের বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পর অবস্থান লঘু করল শ্রী সিমেন্ট।

বোর্ড গঠনের সময় চুক্তিপত্র তৈরি করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে শ্রী সিমেন্ট এবং ইস্টবেঙ্গল ক্লাব। লাল-হলুদের যাবতীয় খেলার স্পোর্টিং স্বত্ত্ব ও ক্লাবের অন্যান্য স্বত্ত্ব ইনভেস্টরের হাতে চলে গেলেও একটি ব্যাপারে আপত্তি জানায় ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। ইনভেস্টরের পক্ষ থেকে দাবি জানানো হয়েছিল ক্লাবের নতুন করে কোনও সদস্য নেওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে কোম্পানি। ক্লাবের সদস্যদের উপরে ক্লাবের কোনও অধিকার থাকবে না। এই শর্তে রাজি না হলে আইএসএল খেলার জন্য ইনভেস্টরদের তরফে কোনও কাজ আর করা হবে না।

সদস্যদের নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারটি ছাড়তে রাজি হননি দেবব্রত সরকার,কল্যান মজুমদাররকে। এফএসডিএলকে পুরো ব্যাপারটা জানায় শ্রী সিমেন্ট। উল্লেখ্য এফএসডিএলের চেয়ারপার্সন নীতা আম্বানি ইতিমধ্যেই ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলার কথা ঘোষণা করেছেন। চুক্তি সমস্যায় শেষপর্যন্ত ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলা আটকে গেলে এফএসডিএলেরও সম্মানহানি হবে। তাই সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসে তারা।আলোচনাতে ঠিক হয়, ক্লাবের যাবতীয় স্বত্ত্ব শ্রী সিমেন্টের হাতে থাকলেও সদস্যদের অধিকার নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারটা ক্লাবের হাতেই থাকবে।

 

বন্ধ করুন