বাংলা নিউজ > ময়দান > ধোনির জীবনে না জানি কত অজানা কথা রয়ে গিয়েছে, সে রকমই পাঁচটি অজানা তথ্য জেনে নিন
অনেকেই মনে করে থাকেন মহেন্দ্র সিং ধোনিই নাকি প্রথম হেলিকপ্টার শট মারতে শুরু করেছিলেন। আর এই শটটি তাঁর নিজস্ব। ধোনির সিগনেচার শট হয়ে গিয়েছে এটা। তবে ধোনির আগেও ভারতের প্রাক্তন আর এক অধিনায়কও অসাধারণ হেলিকপ্টার শট মারতেন। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহম্মদ আজহার উদ্দিনকে বহু আগেই এই হেলিকপ্টার শট মারতে দেখা গিয়েছে। আজহারই প্রথম এই হেলিকপ্টার শট মারতে শুরু করেছিলেন। ১৯৯৬-৯৭ সালে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে আজহারকে হেলিকপ্টার শট মারতে দেখা গিয়েছিল। 1/8

ধোনির জীবনে না জানি কত অজানা কথা রয়ে গিয়েছে, সে রকমই পাঁচটি অজানা তথ্য জেনে নিন

  • মহেন্দ্র সিং ধোনি সাধারণত খেলার বাইরে নিজের প্রচার একেবারেই পছন্দ করেন না। তাই তাঁর সম্পর্কে খুব বেশি কিছু কথা জানা দুরুহ বিষয়। তবু কিছু কথা সূত্র মারফৎ বাইরে চলেই আসে। আর ধোনি সম্পর্কে সে রকমই পাঁচটি অজানা তথ্য দেখে নিন এক নজরে।

মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং য়ুবরাজ সিং-এর মধ্যে ভাল বন্ধুত্বের কথা তো সকলেই জানেন। ভারতীয় দলের জয়-বীরুও অনেক সময়েই তাঁদের বলা হত। প্রায় একই সময়ে ভারতীয় দলে তাঁরা সুযোগ পেয়েছিলেন। জাতীয় দলের ক্যারিয়ারটা প্রায় একই সময়ে শুরু হয়েছিল। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না, ধোনি এবং যুবরাজ একে অপরকে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার আগে থেকেই চেনেন। জোনাল ক্রিকেট খেলার সয় থেকেই তাঁরা পরস্পরকে চেনেন। 4/8
মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং য়ুবরাজ সিং-এর মধ্যে ভাল বন্ধুত্বের কথা তো সকলেই জানেন। ভারতীয় দলের জয়-বীরুও অনেক সময়েই তাঁদের বলা হত। প্রায় একই সময়ে ভারতীয় দলে তাঁরা সুযোগ পেয়েছিলেন। জাতীয় দলের ক্যারিয়ারটা প্রায় একই সময়ে শুরু হয়েছিল। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না, ধোনি এবং যুবরাজ একে অপরকে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার আগে থেকেই চেনেন। জোনাল ক্রিকেট খেলার সয় থেকেই তাঁরা পরস্পরকে চেনেন।
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং রাহুল দ্রাবিড়ের ভারতীয় দল থেকে ছিটকে যাওয়ার পিছনে বড় হাত ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির। একদিনের ক্রিকেটের দলে এই দুই ক্রিকেটারকে চাননি ধোনি। কারণ সৌরভ এবং রাহুলের ফিটনেস নিয়ে একেবারেই সন্তুষ্ট ছিলেন না তিনি। তাই তাঁদের বাদ দিয়ে তরুণদের নিয়ে দল গড়তে চেয়েছিলেন ধোনি। যদিও এই বিষয়টি ধোনি কখনও স্বীকার করেননি। তবে ভারতীয় দলের খবরানুযায়ী ধোনির জন্যই দল থেকে বাদ পড়েছিলেন রাহুল এবং সৌরভ।  6/8
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং রাহুল দ্রাবিড়ের ভারতীয় দল থেকে ছিটকে যাওয়ার পিছনে বড় হাত ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির। একদিনের ক্রিকেটের দলে এই দুই ক্রিকেটারকে চাননি ধোনি। কারণ সৌরভ এবং রাহুলের ফিটনেস নিয়ে একেবারেই সন্তুষ্ট ছিলেন না তিনি। তাই তাঁদের বাদ দিয়ে তরুণদের নিয়ে দল গড়তে চেয়েছিলেন ধোনি। যদিও এই বিষয়টি ধোনি কখনও স্বীকার করেননি। তবে ভারতীয় দলের খবরানুযায়ী ধোনির জন্যই দল থেকে বাদ পড়েছিলেন রাহুল এবং সৌরভ। 
ধোনির ফুটবল প্রীতি কারও অজানা নয়। কিন্তু অনেকেই জানেন না, তাঁকে জোর করে ২২ গজে টেনে আনা হয়েছিল। ক্রিকেট খেলতে একেবারেই আগ্রহী ছিলেন না ধোনি। স্কুলে পড়ার সময়ে তিনি ফুটবল দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন। গোলকিপার পজিশনে খেলতেন। আর সেই টেকনিক কাজে লাগিয়েই কিন্তু তিনি উইকেটকিপার হন। তবে শুরুতে যখন তাঁকে স্কুলের ক্রীড়া শিক্ষক ক্রিকেট খেলার কথা বলেছিলেন, তখন তিনি উত্তর দিয়েছিলেন, ‘ওই ছোট বলে কে খেলবে?’ 7/8
ধোনির ফুটবল প্রীতি কারও অজানা নয়। কিন্তু অনেকেই জানেন না, তাঁকে জোর করে ২২ গজে টেনে আনা হয়েছিল। ক্রিকেট খেলতে একেবারেই আগ্রহী ছিলেন না ধোনি। স্কুলে পড়ার সময়ে তিনি ফুটবল দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন। গোলকিপার পজিশনে খেলতেন। আর সেই টেকনিক কাজে লাগিয়েই কিন্তু তিনি উইকেটকিপার হন। তবে শুরুতে যখন তাঁকে স্কুলের ক্রীড়া শিক্ষক ক্রিকেট খেলার কথা বলেছিলেন, তখন তিনি উত্তর দিয়েছিলেন, ‘ওই ছোট বলে কে খেলবে?’
ধোনির একটা অদ্ভূত বিষয় ছিল, তাঁকে যাঁরা চিনতে পারতেন না তাঁদের প্রতি আকৃষ্ট হয়েছেন তিনি। তাঁর প্রথম গার্লফ্রেন্ড প্রিয়াঙ্কা, যিনি গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন, তিনিও প্রথম ধোনিকে চিনতে পারেননি। যদিও ধোনি তখনও সে ভাবে জনপ্রিয়তা পাননি। এবং পরে সাক্ষীর সঙ্গে তাঁর কলকাতার একটি বিলাসবহুল হোটেলে দেখা হয়েছিল। সেই হোটেলের রিসেপশনে কাজ করছিলেন সাক্ষী। তিনিও ধোনিকে চিনতে পারেননি। যদিও ধোনি তখন অধিনায়ক। পরে অবশ্য সেই সাক্ষীকেই বিয়ে করেন ধোনি। 8/8
ধোনির একটা অদ্ভূত বিষয় ছিল, তাঁকে যাঁরা চিনতে পারতেন না তাঁদের প্রতি আকৃষ্ট হয়েছেন তিনি। তাঁর প্রথম গার্লফ্রেন্ড প্রিয়াঙ্কা, যিনি গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন, তিনিও প্রথম ধোনিকে চিনতে পারেননি। যদিও ধোনি তখনও সে ভাবে জনপ্রিয়তা পাননি। এবং পরে সাক্ষীর সঙ্গে তাঁর কলকাতার একটি বিলাসবহুল হোটেলে দেখা হয়েছিল। সেই হোটেলের রিসেপশনে কাজ করছিলেন সাক্ষী। তিনিও ধোনিকে চিনতে পারেননি। যদিও ধোনি তখন অধিনায়ক। পরে অবশ্য সেই সাক্ষীকেই বিয়ে করেন ধোনি।