বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > FIFA WC Argentine Supporters Clash: কাতারে সংঘর্ষ বাঁধল আর্জেন্টিনা-মেক্সিকো সমর্থকদের মধ্যে, উঠল ‘F*** Messi’ স্লোগান!

FIFA WC Argentine Supporters Clash: কাতারে সংঘর্ষ বাঁধল আর্জেন্টিনা-মেক্সিকো সমর্থকদের মধ্যে, উঠল ‘F*** Messi’ স্লোগান!

কাতারে সংঘর্ষ বাঁধল মেক্সিকো-আর্জেন্টাইন সমর্থকদের মধ্যে (ছবি - টুইটার)

মাঠের বাইরে সংঘর্ষ বাঁধল আর্জেন্টিনা এবং মেক্সিকোর সমর্থকদের মধ্যে। জানা গিয়েছে দোহায় বুধবার দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। ঘটনার ভিডিয়ো ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

বিশ্বকাপে সৌদির বিরুদ্ধে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরে চাপের মধ্যে আছে আর্জেন্টিনা। পরবর্তী ম্যাচে মেক্সিকোর মুখোমুখি হবেন মেসিরা। বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে সেই ম্যাচে জিততেই হবে আর্জেন্টিনা। তবে মাঠের লড়াইয়ের আগেই মাঠের বাইরে সংঘর্ষ বাঁধল আর্জেন্টিনা এবং মেক্সিকোর সমর্থকদের মধ্যে। জানা গিয়েছে দোহায় বুধবার দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। ঘটনার ভিডিয়ো ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, দোহার আল বিদ্দা পার্কে এই সংঘর্ষ বাঁধে। রিপোর্ট অনুযায়ী, মেক্সিকোর সাপোর্টাররা আর্জেন্টাইন অধিনায়র মেসিকে নিয়ে ‘কুকথা’ বলার পরই এই সংঘর্ষ বাঁধে।

এই সংঘর্ষের সাক্ষী থেকেছেন মেক্সিকান সাংবাদিক ওমার নিনো। তিনি দাবি করেন, সেখানে জখম হওয়া ফুটবলপ্রেমীদের প্রাথমিক শুশ্রুষা করেন অন্য ফুটবলপ্রেমীরাই। ঘটনাস্থলে প্রাথমিকভাবে কোনও কাতারি পুলিশ ছিল না বলেই অভিযোগ উঠেছে। এই আবহে কাতারের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। প্রসঙ্গত, ৩০ লাখ মানুষের দেশ কাতারে বিশ্বকাপর সময় ১৫ লাখেরও বেশি বিদেশির আগমন ঘটবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এই আবহে বিশ্বকাপে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রায় ৫০ হাজার প্রশিক্ষিত নিরাপত্তাকর্মী নিয়োজিত থাকবেন।

এদিকে আইনশৃঙ্খলার ক্ষেত্রে নিরাপত্তারক্ষীদের দেখা না মিললেও ‘সংস্কৃতি’ রক্ষার্থে সর্বত্র পৌঁছে যাচ্ছে কাতারি পুলিশ। ছয়রঙা রামধনুর কোনও পোশাক বা প্রতীক দেখলেই কঠোর হচ্ছে নিরাপত্তারক্ষীরা। সাংবাদিকদের ওপর ‘বিশেষ নজর’ রেখে চলেছে কাতারি পুলিশ। এই নিয়ে একাধিক বিতর্কিত ঘটনা ঘটেছে। সাংবাদিককে হুমকি দেওয়ার একাধিক ঘটনা সামেন এসেছে কাতারে। এক ব্রাজিলিয়ান সাংবাদিককে হেনস্থা ‘প্রাদেশিক পতাকা’ নিয়ে যাওয়ার জন্য। এক মার্কিন সাংবাদিককে স্টেডিয়ামে ঢুকতে দেওয়নি রামধনু টিশার্ট পরার জন্য। এক সাংবাদিক রাস্তায় দাঁড়িয়ে রিপোর্টিং করায় তাঁর ক্যামেরা ভেঙে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। বিশ্বকাপ শুরু হয়ে গেলেও এই সব ঘটনার মাঝে বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না কাতারের।

বন্ধ করুন