বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > বর্ষসেরা ফুটবলার হলেন বালা দেবী, সেরা প্রতিভাবান ফুটবলার মণীশা কল্যাণ
বালা দেবী এবং মণীশা কল্যাণ।
বালা দেবী এবং মণীশা কল্যাণ।

বর্ষসেরা ফুটবলার হলেন বালা দেবী, সেরা প্রতিভাবান ফুটবলার মণীশা কল্যাণ

  • বালা দেবী এখন স্কটল্যান্ডের ক্লাব রেঞ্জার্সে খেলেন। ভারতীয় মহিলা ফুটবলাদের মধ্যে বালা দেবীই ইউরোপের কোনও পেশাদার ফুটবল ক্লাবে খেলার প্রথম সুযোগ পেয়েছিলেন। অন্যদিকে মণীশা গোকুলম কেরালা এফসিকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন করতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন।

অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের তরফে মঙ্গলবার মহিলা ফুটবলাদের পুরস্কৃত করা হয়। এই বছর আবার বর্ষসেরা ফুটবলার হলেন বালা দেবী। এই নিয়ে তিন বার ফেডারেশনের বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার পেলেন বালা দেবী। এর আগে ২০১৪ এবং ২০১৫ সালে পরপর দু'বার ফেডারেশনের বিচারে বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন ৩১ বছরের তারকা মহিলা ফুটবলার। আর সেরা প্রতিভাবান ফুটবলারের পুরস্কার পেয়েছেন মণীশা কল্যাণ।

বালা দেবী এখন স্কটল্যান্ডের ক্লাব রেঞ্জার্সে খেলেন। ভারতীয় মহিলা ফুটবলাদের মধ্যে বালা দেবীই ইউরোপের কোনও পেশাদার ফুটবল ক্লাবে খেলার প্রথম সুযোগ পেয়েছিলেন। এই বছর আবার দেশের সেরা ফুটববারের সম্মান পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত বালা দেবী বলেছেন, ‘এই সম্মান পেয়ে আমার নিজেকে আরও বেশি উজ্জীবিত মনে হচ্ছে। আরও কঠোর পরিশ্রম করতে এটা আমার কাছে অনুপ্রেরণার কাজ করবে। আমি নিশ্চিত, আমি আমার লক্ষ্যে ঠিক পৌঁছতে পারব।’

এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেছেন, ‘এই সম্মান পেয়ে আমি বেশ আপ্লুত। ফেডারেশনকে অনেক ধন্যবাদ। এই সাফল্যের পিছনে কোচেদের অবদানের কথাও অস্বীকার করতে পারব না। আমার পরিবার এবং সতীর্থদেরকেও ধন্যবাদ জানাই।’

প্রথমে ভারতের জার্সিতে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে নজর কেড়েছিলেন। দু'বছর আগে সিনিয়র দলে অভিষেক হয়েছিল মণীশার। গত বছর আই লিগে সেরা প্রতিভাবান ফুটবলারের পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। গোকুলম কেরালা এফসিকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন করতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন মণীশা।

বন্ধ করুন