বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > প্রাক্তন গোল মেশিন লেওয়ানডোস্কির ব্যর্থতার দিনে বার্সাকে ২-০ গোলে হারাল বায়ার্ন
বারবার ব্যর্থ হলেন রবার্ট লেওয়ানডোস্কি (ছবি-রয়টার্স)

প্রাক্তন গোল মেশিন লেওয়ানডোস্কির ব্যর্থতার দিনে বার্সাকে ২-০ গোলে হারাল বায়ার্ন

  • বার্সেলোনা বনাম বায়ার্ন মিউনিখ দ্বৈরথ মানেই উত্তেজনার পারদ চরমে পৌঁছায়। মঙ্গলবার রাতেও সেটাই দেখা গেল। মিউনিখে বার্সার আমন্ত্রণকে থামিয়ে দিল বায়ার্ন। বায়ার্ন মিউনিখ আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও বেশি সুযোগ তৈরি করে ছিল রবার্ট লেওয়ানডোস্কি বার্সেলোনা।

বার্সেলোনা বনাম বায়ার্ন মিউনিখ দ্বৈরথ মানেই উত্তেজনার পারদ চরমে পৌঁছায়। মঙ্গলবার রাতেও সেটাই দেখা গেল। মিউনিখে বার্সার আমন্ত্রণকে থামিয়ে দিল বায়ার্ন। বায়ার্ন মিউনিখ আক্রমণে এগিয়ে থাকলেও বেশি সুযোগ তৈরি করে ছিল রবার্ট লেওয়ানডোস্কি বার্সেলোনা। ম্যাচের প্রথমার্ধেই পাঁচটি দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন ছন্দে থাকা রবার্ট লেওয়ানডোস্কি। কিন্তু প্রাক্তন দলের বিরুদ্ধে এদিন গোল পেলেন না তিনি। উল্টো দিকে দ্বিতীয়ার্ধের দশ মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে বায়ার্নকে এগিয়ে দিলেন লুকাস হার্নান্দেজ ও লেরয় সানে। 

এদিনের ম্যাচটি নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই কৌতূহল হল চরমে পৌঁছে ছিল। বার্সার জার্সি গায়ে বায়ার্নের বিরুদ্ধে রবার্ট লেওয়ানডোস্কি কেমন খেলেন সেটাই ছিল আলোচনার প্রধান বিষয়। জার্মান দলটির হয়ে ২৩৮ গোল করা ফরোয়ার্ড বার্সার হয়ে কত গুলো গোল করেন সেটিই ছিল দেখার। কিন্তু এদিন ব্যর্থ হলেন লেওয়ানডোস্কি। বায়ার্নের প্রাক্তন গোলমেশিনকে নিয়েও বার্সেলোনাকে ২-০ গোলে হারতে হল। 

আরও পড়ুন… প্রকাশ্যে এল অজিদের বিশ্বকাপের জার্সি, উঠে এসেছে দেশের শিকড়ের কাহিনি

এদিন বায়ার্নের হয়ে দুটি গোল করেন বায়ার্নের লুকা হার্নান্দেজ ও লেরয় সানে। তবে এদিন ভাগ্য সঙ্গে ছিল না লেওয়ানডোস্কির। দুটি সহজ সুযোগ পেয়েও জালে বড় জড়াতে ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। অবশ্য লেওয়ানকে হতাশ করার বড় কৃতিত্ব বায়ার্নের গোলরক্ষক ও অধিনায়ক ম্যানুয়েল নয়ারকে দিতে হয়।

২১তম মিনিটে লেওয়ানডোস্কির দুর্দান্ত হেড অবিশ্বাস্যভাবে ফিরিয়ে দিয়ে জাল সুরক্ষিত রাখেন ম্যানুয়েল। এর আগে ১৮ তম মিনিটে নয়ারকে একা পেয়েও বোকার মতো পোস্টের বাইরে শট মারেন লেওয়ানডোস্কি। এর আগে ম্যাচে ৯ মিনিটে বার্সা মিডফিল্ডার পেদ্রিকে একটি শট রুখে দেন বায়ার্নের গোলরক্ষক। খেলার প্রথমার্থ গোলশূন্য থাকে। 

দ্বিতীয়ার্ধে নেমে শুরুতেই অনেকটা এলোমেলে দেখায় বার্সাকে। সুযোগের ষোলআনা সদ্ব্যবহার করে বায়ার্ন। ৫০ থেকে ৫৪, এই পাঁচ মিনিটের মধ্যে দুই গোল করে বায়ার্ন মিউনিখ। ৫০ মিনিটে কর্ণার কিক নেন জশুয়া কিমিখ। বল বার্সার জালের কাছে ভাসিয়ে দেন। সেই বল দারুণ হেডে বার্সার জালে পাঠিয়ে দেন লুকা হার্নান্দেজ। এর ৪ মিনিট পরেই জামাল মুসিয়েলা মাঝমাঠ থেকে বল টেনে নিয়ে বক্সের কাছে দাঁড়িয়ে থাকা লেরয় সানেকে পাস দেন। বার্সা গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বায়ার্ন ফরোয়ার্ড। 

আরও পড়ুন… স্টেফানি টেলরকে পিছনে ফেলে মহিলাদের T20I তে রেকর্ড গড়লেন স্মৃতি মান্ধানা

বায়ার্নের মাঠে এই নিয়ে ৫ ম্যাচে হারল বার্সালোনা। ২টি অবশ্য অমিমাংসিত। এ ফলের পর ‘সি’ গ্রুপে ২ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে বার্সা। সমান ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বায়ার্ন মিউনিখ। একই গ্রুপের অন্য ম্যাচে ভিক্টোরিয়া প্লজেনকে ২-০ গোলে হারিয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ইন্টার মিলান। সমান ম্যাচ থেকে কোনও পয়েন্ট না পাওয়া প্লজেন সবার শেষে রয়েছে। 

বন্ধ করুন