বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > সন্তোষ ট্রফিতে আগুনে মেজাজে বাংলা, দামান ও দিউকে ৫-০ উড়িয়ে দিল বিশ্বজিতের টিম

সন্তোষ ট্রফিতে আগুনে মেজাজে বাংলা, দামান ও দিউকে ৫-০ উড়িয়ে দিল বিশ্বজিতের টিম

সন্তোষ ট্রফির দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় বাংলার।

সোমবার কোলাপুরের ছত্রপতি শাহু স্টেডিয়ামে বাংলার ছেলেদের দাপটে কেঁপে গেল দামান ও দিউ। পাঁচ গোলের মালা পরিয়ে দিল বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দল। জোড়া গোল করেন নরহরি শ্রেষ্ঠা এবং রবি হাঁসদা। অন্য গোলটি শৌভিক করের।

সন্তোষ ট্রফিতে বাংলার জয়ের ধারা অব্যাহত। দুরন্ত ছন্দে রয়েছে বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের টিম। প্রথম ম্যাচে হরিয়ানাকে দাঁড়াতেই দেয়নি বাংলা। সোমবার সন্তোষ ট্রফির দ্বিতীয় ম্যাচে দামান ও দিউ-এর বিরুদ্ধে আগাগোড়া প্রাধান্য দেখাল বাংলা। পাঁচ-পাঁচটি গোল করলেন বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের ছেলেরা।

সোমবার কোলাপুরের ছত্রপতি শাহু স্টেডিয়ামে বাংলার ছেলেদের দাপটে কেঁপে গেল দামান ও দিউ। পাঁচ গোলের মালা পরিয়ে দিল বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দল। জোড়া গোল করেন নরহরি শ্রেষ্ঠা এবং রবি হাঁসদা। অন্য গোলটি শৌভিক করের। গ্রুপের সবচেয়ে দুর্বল দল দমন ও দিউ। তাই এই ম্যাচে গোল সংখ্যা বাড়িয়ে রাখতে চেয়েছিলেন বাংলার কোচ। তাঁর সেই উদ্দেশ্য পুরো সফল।

আরও পড়ুন: মুম্বইয়ের অপরাজিত থাকার রেকর্ড অব্যাহত, কেরালাকে উড়িয়ে শীর্ষে MCFC

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য অবশ্য ম্যাচের আগে জানিয়েছিলেন, প্রতিটি ম্যাচ জেতার লক্ষ্য নিয়েই সন্তোষ ট্রফি খেলতে এসেছে বাংলা। প্রতিপক্ষ দুর্বল বলে, তাদের গুরুত্ব দেওয়া হবে না, এমন মানসিকতা নিয়ে মাঠে নামে না বঙ্গশিবির। যে কারণে বঙ্গশিবির শুরু থেকে বেশ সতর্ক ছিল। তবে ম্যাচের পুরো রাশই ছিল বাংলার হাতে।

আরও পড়ুন: অলৌকিক কিছু না ঘটলে সেরা ছয়ে থাকা যাবে না- ওড়িশার কাছে হেরে মেনে নিলেন EB কোচ

এ দিন শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলেন নরহরিরা। ম্যাচের ৩ মিনিটের মাথায় রবি হাঁসদার গোলে এগিয়ে যায় বাংলা। বিরতির ঠিক আগে ২-০ করেন অধিনায়ক নরহরি। আবার ম্যাচের ৫৩ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান রবি হাঁসদা। ১০ মিনিটের মধ্যে আবার গোল। ৬৩ মিনিটে ৪-০ করেন নরহরি। পঞ্চম গোল হয় ৮৩ মিনিটে। করেন পরিবর্তে নামা ফুটবলার শৌভিক কর।

বুধবার মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে তৃতীয় ম্যাচ বাংলার। জোড়া জয়ে গ্রুপ লিগের শীর্ষে বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের দল। মাঠের সমস্যার জন্য ঠিক মতো অনুশীলন করা সম্ভব হচ্ছে না। তা সত্ত্বেও যাবতীয় প্রতিকূলতা দূর করে এগিয়ে চলেছে বাংলার বিজয় রথ। গতবছর রানার্স তকমা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল রঞ্জন ভট্টাচার্যের দলকে। এ বার ট্রফি নিয়ে ফিরতে মরিয়া বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের বাংলা।

বন্ধ করুন