বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > কলকাতা লিগের অবনমন ইস্যুতে দুই মেরুতে সভাপতি-চেয়ারম্যান! IFA সচিবের বড় পদক্ষেপ

কলকাতা লিগের অবনমন ইস্যুতে দুই মেরুতে সভাপতি-চেয়ারম্যান! IFA সচিবের বড় পদক্ষেপ

আইএফএ সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় ও আইএফএ সচিব অনির্বাণ দত্ত (ছবি-আইএফএ)

আইএফএর মিটিংয়ে সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় অন্যান্য ডিভিশনের খেলার অবনমন বন্ধ করার কথা বলেন। তিনি যুক্তি দিয়ে বলেন, প্রিমিয়ার ডিভশনের ‘এ’ গ্রুপের মতো অন্যান্য ডিভিশনের খেলারও অবনমন বন্ধ করতে হবে। যদিও এর বিরোধিতা করেন আইএফএর চেয়ারম্যান সুব্রত দত্ত।

এবারের কলকাতা লিগে অবনমন ইস্যুতে আইএফএকে ১৬টি ক্লাব একসঙ্গে চিঠি দিল। আর তা নিয়েই এদিন আইএফএর মিটিংয়ে সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় এবং চেয়ারম্যান সুব্রত দত্তের মধ্যে বেশ কথা কাটাকাটি দেখা গেল। এরপরে এই বিষয়ে বক্তব্য রাখেন আইএফএ-র সহ-সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাসও।

এদিন আইএফএর মিটিংয়ে সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় অন্যান্য ডিভিশনের খেলার অবনমন বন্ধ করার কথা বলেন। তিনি যুক্তি দিয়ে বলেন, প্রিমিয়ার ডিভশনের ‘এ’ গ্রুপের মতো অন্যান্য ডিভিশনের খেলারও অবনমন বন্ধ করতে হবে। যদিও এর বিরোধিতা করেন আইএফএর চেয়ারম্যান সুব্রত দত্ত। 

কিছুদিন আগেই আইএফএর গভর্নিং বডির সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল, প্রিমিয়ার ডিভিশনের ‘এ’ গ্রুপ ছাড়া অন্যান্য ডিভিশনে রেলিগেশন, চ্যাম্পিয়নশিপ বহাল থাকবে। সেই কারণেই সুব্রত দত্ত এদিন বলেন, ‘নতুন করে সিদ্ধান্ত নিতে হলে পুরো ব্যাপারটা ফের গভর্নিং বডিতেই ফেলা উচিত। আর যে লিগে চ্যাম্পিয়নশিপ-রেলিগেশন নেই, সেটা লিগ হতে পারে না।’

আরও পড়ুন… CPL 2022- নবির দৌলতে ফ্যাফের সেন্ট লুসিয়া কিংসদের হারিয়ে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জামাইকা তালাওয়াস 

এই পরিপেক্ষিতে পরে অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘তাহলে শুধু অবনমন বন্ধ থাকুক।’ এরপরে সভাপতির এমন কথা শুনে এগিয়ে আসেন স্বরূপ বিশ্বাস। তিনি বলেন, ‘একটা লিগের মধ্যে এরকম আলাদা করে কোনও নিয়ম হতে পারে না। লিগের অন্যান্য ক্লাব একটা নিয়মাবলি জেনে খেলা শুরু করল। তারপর লিগের শেষে এসে অন্য নিয়ম। এভাবে হতে পারে না।’ এরপরে ঠিক হয়েছে, ২৯ সেপ্টেম্বর এই ইস্যুতে গভর্নিং বডির সভা হবে। সেখানেই ঠিক হবে পরবর্তি সিদ্ধান্ত। 

এদিকে ফেডারেশনের ফুটসল কমিটির পদ ফিরিয়ে দিলেন আইএফএ সচিব অনির্বাণ দত্ত। তবে সংস্থার সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায় ফেডারেশেনর ফুটসল কমিটিতে থাকবেন কি না, সে বিষয়ে এখনও তিনি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেননি। যদিও আইএফএ সভাপতি এদিন বললেন, ‘ফুটসল কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে, এখনও ফেডারেশনের চিঠি পাইনি। আগে চিঠি হাতে পাই, তারপর সিদ্ধান্ত নেব।’ তবে সচিব পদত্যাগ করলেও কম্পিটিশন কমিটির মিটিংয়ে যোগ দেওয়ার জন্য মঙ্গলবার দিল্লি যাচ্ছেন আইএফএর সহ-সভাপতি সৌরভ পাল। 

আরও পড়ুন… LLC 2022: গেইল-সেহওয়াগদের জায়ান্টসদের ৫৭ রানে হারাল ইরফান পাঠানের কিংস

শোনা যাচ্ছে, কিছুদিন আগে ফেডারেশনের যে বিভিন্ন সাব কমিটি তৈরি হয়, তাতে বাংলার সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফুটসল কমিটির চেয়ারম্যান করে সচিব অনির্বাণ দত্তকে সাধারণ সদস্য করা হয়েছে। আর এতেই যথেষ্ট অপমানিত বোধ করেছেন আইএফএ সচিব। প্রথমত ফেডারেশনের একটি সাব কমিটিতে আইএফএ সভাপতি, সচিব দু’জনেই আছে দেখে ফেডারেশনের অন্যান্য পদাধিকারীরা অবাক হয়েছেন। 

এরমধ্যে অনির্বাণ দত্ত এদিন ফেডারেশনকে জানিয়ে দেন, ফুটসল কমিটির সদস্য হিসেবে বাংলার ফুটবলের ডেভলপমেন্টের কোনও কাজই তিনি করতে পারবেন না। কারণ, তিনি বাংলার ফুটবলের ডেভলপমেন্টের কাজ করতে চান। আইএফএর তরফে যিনি ফুটসল দেখাশোনা করেন, সেই অরূপ চক্রবর্তীকে ফেডারেশনের ফুটসল কমিটিতে নেওয়ার অনুরোধ করেছেন তিনি। 

বন্ধ করুন