বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > Champions League: বেঞ্জেমার ইতিহাস গড়ার রাতে স্বপ্নভঙ্গ মেসি, এমবাপেদের
হতাশ মেসির সামনেই বেঞ্জেমার উচ্ছ্বাস। ছবি- এএফপি। (AFP)

Champions League: বেঞ্জেমার ইতিহাস গড়ার রাতে স্বপ্নভঙ্গ মেসি, এমবাপেদের

  • লিভারপুল, বায়ার্ন মিউনিখ ও রিয়াল মাদ্রিদের পাশাপাশি ম্যাঞ্চেস্টার সিটিও কোয়ার্টারে নিজেদের জায়গা পাকা করেছে।

প্রায় বছর পাঁচেক আগেই স্পেনের মাটিতে ছয় গোলের লজ্জায় বার্সেলোনার বিরুদ্ধে হেরে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে গিয়েছিল প্যারিস সাঁ-জাঁ। সেই বার্সা দলের দুই মহাতারকা লিওনেল মেসি এবং নেইমার এখন পিএসজিতে। তবে তাঁরা ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের বিপর্যয় রুখতে পারলেন না। আবার স্পেনের মাটিতেই স্বপ্নভঙ্গ হল পিএসজির।

গত লেগে কিলিয়ান এমবাপের শেষ মুহূর্তের গোলে এই টাইয়ে ১-০ এগিয়েই সান্তিয়াগো বার্নাবেউতে পা রেখেছিল পিএসজি। এদিনও পিএসজির সেরা খেলোয়াড় তিনিই। প্রথমার্ধে এমবাপে একবার বল জালে জড়ালেও তা অফসাইডের জন্য বাতিল করা হয়। তবে ৩৯ মিনিটে ফরাসি ফরোয়ার্ড আবারও বল জালে জড়ালে, পিএসজি ম্যাচে ১-০ ও টাইতে ২-০ এগিয়ে যায়। তখন হয়তোই কেউ আন্দাজ করতে পেরেছিল যে রাতটা এমবাপে নন, বরং তাঁর প্রতিপক্ষে খেলা আরেক ফরাসি ফরোয়ার্ডের হতে চলেছে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়াল মাদ্রিদকে কোনোসময়ই ধর্তব্যের বাইরে রাখা সম্ভব নয়। আবারও একবার কেন তা সম্ভব নয়, তা উদাহরণ দেখা গেল। রিয়াল মাদ্রিদের এই মরশুমের সেরা খেলোয়াড় করিম বেঞ্জেমা বোঝালেন, কেন তিনি এই প্রজন্মের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার। ৬১ ও ৭৬ মিনিটে গোল করে তিনি প্রথমে রিয়ালকে টাইয়ে ফেরান এবং ঠিক তার এক মিনিটের মধ্যেই পিএসজি গোলরক্ষক দোন্নারুমার এক ভুলের লাভ নিয়ে ৭৮ মিনিটে নিজের হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ করেন। 

ম্যাচে আর কোনো গোল হয়নি। রিয়াল মাদ্রিদ ৩-১ ম্যাচ ও ৩-২ টাই জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে নিজেদের জায়গা পাকা করে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সে হ্যাটট্রিক করার রেকর্ড গড়েন বেঞ্জেমা। পাশাপাশি আলফ্রেদো দি স্তেফানোকে টপকে রিয়াল মাদ্রিদের সর্বকালীন তৃতীয় সর্বোচ্চ (৩০৯) গোলদাতাও হয়ে যান বেঞ্জেমা। তাঁর সামনে শুধু রাউল (৩২৩) ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (৪৫০)। 

ফের একবার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছতে পারল না পিএসজি। এই নিয়ে গত ছয় মরশুমে তৃতীয় বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক-আউটে প্রথম লেগে লিড নিয়েও, টাই হারতে হল তাদের। গোটা ম্যাচে তেমন প্রভাব ফেলতে পারেননি মেসি বা নেইমার কেউই। অপরদিকে, গত লেগে স্পোর্টিং লিসবনকে ৫-০ হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে প্রায় পৌঁছেই গিয়েছিল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। কার্যত নিয়মরক্ষার মতো এক ম্যাচে, ঘরের মাঠে স্পোর্টিংয়ের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে লিভারপুল, বায়ার্ন মিউনিখ ও রিয়াল মাদ্রিদের পাশাপাশি তারাও কোয়ার্টারে নিজেদের জায়গা পাকা করল।

বন্ধ করুন