বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > Champions League: ফাইভ স্টারে শোয়ে গ্রুপ শীর্ষে লিভারপুল, সুয়ারেজের পেনাল্টিতে রুদ্ধশ্বাস জয় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের
ম্যাচের প্রথম গোল করার পর সালাহকে ঘিরে লিভারপুল সতীর্থদের উচ্ছ্বাস। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
ম্যাচের প্রথম গোল করার পর সালাহকে ঘিরে লিভারপুল সতীর্থদের উচ্ছ্বাস। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

Champions League: ফাইভ স্টারে শোয়ে গ্রুপ শীর্ষে লিভারপুল, সুয়ারেজের পেনাল্টিতে রুদ্ধশ্বাস জয় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের

  • লিভারপুলের হয়ে সালাহ ও ফির্মিনো জোড়া গোল করেন, প্রত্যাবর্তনের পর অ্যাটলেটিকোর হয়ে গ্রিজম্যানও প্রথম গোল করেন।

মঙ্গলবার তুলনামূলক কঠিন গ্রুপ ‘বি’-র ম্যাচে পোর্তোকে পাঁচ গোলে দুরমুশ করে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল লিভারপুল। অপরদিকে, পিছিয়ে পড়েও শেষ মুহূর্তের পেনাল্টিতে এসি মিলানের বিরুদ্ধে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে তিন ম্যাচ পরে জয় এনে দিলেন তারকা স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ।

সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মুখোমুখি হয়েছে লিভারপুল ও পোর্তো। গত দুইবার পোর্তোকে ঘরের মাঠে যথাক্রমে ৫-০ ও ৪-১ হারানোর পর এদিনও ৫-১ জিতে পর্তুগিজ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে লিভারপুলের দাপট অব্যাহত। ম্যাচ শুরুর আগে ওয়ার্ম আপে দলের তারকা ডিফেন্ডার পেপে আহত হওয়ায় লড়াই আরও কঠিন হয় পোর্তোর। তাঁর অভিজ্ঞতার অভাব এদিন স্পষ্ট বোঝা গেল।

লিভারপুলের ফরোয়ার্ড ত্রয়ী মহম্মদ সালাহ, রবার্তো ফির্মিনো ও সাদিও মানে, তিনজনেরই পোর্তোর বিরুদ্ধে গোলের রেকর্ড দারুণ। শুরুটা ঠিকঠাক করলেও সামান্য ভুল এবং মহম্মদ সালাহের গোল করার ইন্সটিঙ্কটের কাছে ১৮ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে পোর্তো। বিরতির ঠিক আগে জেমস মিলনারের ক্রস থেকে পোর্তো গোলরক্ষক দিয়েগো কোস্টার ভুল সিদ্ধান্তের সুযোগে ব্যবধান দ্বিগুন করেন মানে। আরেক ফরোয়ার্ড দিয়োগো জোটা বেশ কয়েকটা সুযোগ পেলেও গোল পাননি।

৬০ মিনিটে ফের একবার পোর্তোর জালে বল জড়িয়ে দেন সালাহ। ম্যাচের শুরু থেকে না খেলেও দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামেন ফির্মিনো। ৭৪ মিনিটে মেহেদি তারেমি পোর্তোর হয়ে এক গোল শোধ করলেও, তিন মিনিটের মধ্যেই ফের গোলরক্ষক কোস্টার ভুলের লাভ তুলে এগিয়ে যায় লিভারপুল, গোল করেন ফির্মিনো। তাঁক চার মিনিটের মাথায় নিজের দ্বিতীয় ও রেডদের পঞ্চম গোলটিও আসে ব্রাজিলিয়ানের পা থেকেই। তরুণ মিডফিল্ডার কার্টিস জোন্স ম্যাচে দুটি অ্যাসিস্ট করা পাশপাশি দুরন্ত পরিপক্কতার সঙ্গে খেলেন।

অপরদিকে গ্রুপের অন্য ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল অ্যাটলেটিকো এবং এসি মিলান। জ্লাটন ইব্রাহিমোভিচের অনুপস্থিতিতে রাফায়েল লিয়াও ২০ মিনিটে রসোনেরিকে এগিয়ে দিলেও ২৯ মিনিটে ফ্রাঙ্ক কেসিয়ে লাল কার্ড দেখায় চাপ বাড়ে মিলানের। জমাট রক্ষণে ভর করে অ্যাটলেটির আক্রমণ দীর্ঘক্ষণ প্রতিহত করলেও ম্যাচের শেষ মিনিট গুলোয় ঘটে বিপত্তি। এই গ্রীষ্মে অ্যাটলেটিতে ফেরার পর ৮৪ মিনিটে নিজের প্রখম গোলটি করেন আন্তোয়া গ্রিজম্যান।

গোল করে গ্রিজম্যানের সেলিব্রেশন। ছবি- টুইটার (@AntoGriezmann)।
গোল করে গ্রিজম্যানের সেলিব্রেশন। ছবি- টুইটার (@AntoGriezmann)।

এরপর ম্যাচের ইনজুরি টাইমে ৯৭ মিনিটে পোনাল্টি থেকে গোল করে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে  স্পেনের লিগ চ্যাম্পিয়নদের জেতাতে সাহায্য করেন লুইস সুয়ারেজ। এই জয়ের ফলে ছয় পয়েন্ট পাওয়া লিভারপুলের পরে গ্রুপে দ্বিতীয় স্থানে রইল অ্যাটলেটিকো। মিলান শূন্য পয়েন্ট নিয়ে শেষে। অপরদিকে, গ্রুপ ‘সি’-র ম্যাচে আরলিং হালান্ডের অনপস্থিতি সত্ত্বেও বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে ড্যানিয়েল মালানের প্রথম গোল ম্যাচ জেতে তারা। তুর্কির ক্লাব বেসিক্তাসকে স্টিভেন বার্গাউস এবং সেবাস্তিয়ান হালেরের গোলে ২-০ ব্যবধানে মাত দেয় আয়াক্স। ডর্টমুন্ড ও আয়াক্স, দুইজনেই এই গ্রুপে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে ছয় পয়েন্ট পেয়েছে।

বন্ধ করুন