বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > Champions League: ১০ নম্বর জার্সিধারীর গোলে কোনক্রমে জয় বার্সার, বেনফিকাকে পাঁচ গোল দিল বায়ার্ন
গোল করে উচ্ছ্বসিত ফাতি। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
গোল করে উচ্ছ্বসিত ফাতি। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

Champions League: ১০ নম্বর জার্সিধারীর গোলে কোনক্রমে জয় বার্সার, বেনফিকাকে পাঁচ গোল দিল বায়ার্ন

  • নিজের শততম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ম্য়াচে বায়ার্নের হয়ে হ্যাটট্রিক করেন রবার্ট লেওয়ানডোস্কি।

সপ্তাহান্তে লা লিগায় হতাশাজনক ড্রয়ের পর জয়ের সরণীতে ফিরল বার্সেলোনা, সৌজন্যে দলের ১০ নম্বর জার্সিধারী আনসু ফাতি। ডিনামো কিয়েভের বিরুদ্ধে ম্যাচের একমাত্র গোল করে দলকে জেতান বার্সা টিনএজার। তবে বেনফিকার বিরুদ্ধে রবার্ট লেওয়ানডোস্কির হ্যাটট্রিকের সুবাদে ৫-২ ব্যবধানে দাপুটে জয় বায়ার্ন মিউনিখের ঝুলিতে।

নিজেদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম দুই ম্যাচে পরাজয়ের পর কিয়েভের বিপক্ষে পরপর দুই ম্যাচ জেতা আবশ্যক ছিল কাতালান ক্লাবের পক্ষে। গোটা ম্যাচে প্রচুর সুযোগ তৈরি করলেও ফিনিশিং সমস্যা ফের একবার বার্সার সামনে প্রকট হয়। মেমফিস ডিপাই, ফাতি এবং জর্দি আলবা, সকলেই প্রথমার্ধে বার্সাকে এগিয়ে দেওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করেন। তবে বার্সা সুযোগ তুলতে না পারায় ধীরে ধীরে ম্যাচে ফেরে কিয়েভ। মার্ক আন্দ্রে টারস্টেগেন ভাল সেভ করে ভয়ঙ্কর দেখানো শাপরেঙ্কোর শট রুখে দেন।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য শেষ হওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই বার্সা দাপট বজায় রাখে। কিন্তু কিছুতেই গোলের সুযোগ আসছিল না। ফাতি ৬৩ মিনিটে পেনাল্টি বক্সে পড়ে গিয়ে পেনাল্টি আদায় করতে সক্ষম হলেও ভিএআর তা বাতিল করে। বহুদিন বাদে চোট সারিয়ে মাঠে ফেরায় উসমান দেম্বেলে দলের আক্রমণকে বাড়তি ঝাঁঝ দেন এবং শেষমেশ প্রায় ৪৫০ মিনিট পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অ্যাওয়ে ম্যাচে বার্সার হয়ে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন ফাতি। কিয়েভ শেষের দিকে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করলেও ম্যাচ ১-০ স্কোরলাইনেই শেষ হয়।

বার্সার গোল করার লোকের অভাব হলেও বায়ার্নের কিন্তু এই সমস্যা কখনই হয়না। দলের তারকা ফরোয়ার্ড রবার্ট লেওয়ানডোস্কি আবারও প্রমাণ করলেন কেন তাঁকে এই মুহূর্তে মতান্তরে বিশ্বের সেরা ফুটবলার মনে করা হয়। নিজের শততম ম্যাচে ২৬ মিনিটেই দলরকে এগিয়ে দেন লেওয়ানডোস্কি। এরপর ৩২ মিনিটে তাঁর পাস থেকে দলের ব্যবধান দ্বিগুন করেন সার্জ ন্যাবরি। তবে সকলকে চমকে দিয়েই লেওয়া প্রথমার্ধে পেনাল্টি মিস করেন। ৩৮ মিনিটে মোরতোর গোলে প্রথমার্ধ শেষ হয় ২-১ স্কোরে।

গোল করে লেওয়ানডোস্কির সেলিব্রেশন। ছবি- টুইটার (@ChampionsLeague)।
গোল করে লেওয়ানডোস্কির সেলিব্রেশন। ছবি- টুইটার (@ChampionsLeague)।

লেওয়া কিন্তু থামার পাত্র নয়। দ্বিতীয়ার্ধে ৬০ এবং ৮৫ মিনিটে গোল করে হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ করে পেনাল্টি মিসের দাম মেটাতে পোলিশ স্ট্রাইকার। তার আগেই অবশ্য ৪৯ মিনিটে লিরয় সানের আগুনে শটে ম্যাচ ৩-১ করে বায়ার্ন কার্যত জয় সুনিশ্চিত করে ফেলেছিল। বেনফিকার হয়ে ৭৫ মিনিটে ডারউইন নুনেজের গোল কোনো কাজে আসেনি। ম্যাচ শেষ হয় ৫-২ ব্যবধানে বায়ার্নের পক্ষে। চার ম্যাচের চারটিই জিতে পররে পর্বে নিজের জায়গা পাকা করে বাভেরিয়ানরা। গ্রুপ ‘ই’-র দ্বিতীয় স্থানে ছয় পয়েন্ট নিয়ে রেয়েছে বার্সা এবং বেনফিকা চার পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে তৃতীয় স্থানে।

বন্ধ করুন