বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > যে মাঠে যাচ্ছিল প্রাণ, সেই পার্কেন স্টেডিয়ামেই ১ বছরের মধ্যে ফিরে গোল এরিকসেনের

যে মাঠে যাচ্ছিল প্রাণ, সেই পার্কেন স্টেডিয়ামেই ১ বছরের মধ্যে ফিরে গোল এরিকসেনের

গোলের পর ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেনের উচ্ছ্বাস।

রবিবারই আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফিরেছেন ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন। নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিলেন পরিবর্ত হয়ে। সেই ম্যাচে গোল পান। এর পর সার্বিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় প্রদর্শনী ম্যাচেও গোল করেন। যে মাঠে ফুটবল জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল তাঁর, সেই মাঠেই গোলে করে দুরন্ত প্রত্যাবর্তন করেন ড্যানিশ তারকা।

একেই বলে বোধহয় স্বপ্নের প্রত্যাবর্তন। যে পার্কেন স্টেডিয়ামে মৃত্যুকে খুব সামনে দেখে দেখেছিলেন, সেই স্টেডিয়ামেই ২৯০ দিন পর রঙিন প্রত্যাবর্তন ঘটল ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেনের। গত বছর জুনে ইউরোর প্রথম ম্যাচে ফিনল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেই এই পার্কেন স্টেডিয়ামেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিলেন ডেনমার্কের তারকা প্লেয়ার। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। মরেও যেতে পারতেন। তবে হাল না ছেড়ে সেখান থেকেই নতুন লড়াই শুরু করেন এরিকসেন। ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে ফের ফুটবল মাঠে ফিরেছেন। জাতীয় দলের জার্সিতে গোলও করছেন।

রবিবারই আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফিরেছেন ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন। নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিলেন পরিবর্ত হয়ে। সেই ম্যাচেও তিনি গোল পান। এর পর মঙ্গলবার সার্বিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় প্রদর্শনী ম্যাচেও গোল করেন ড্যানিশ তারকা। এই মাঠেই ফুটবল জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল তাঁর। সেই মাঠেই গোলে করে দুরন্ত প্রত্যাবর্তনের পর ভেসে যান উচ্ছ্বাসের জোয়ারে। প্রসঙ্গত, এই ম্যাচে এরিকসেন ছিলেন দলের অধিনায়ক। তাই সব মিলিয়ে তাঁর প্রত্যাবর্তনের মঞ্চে একেবারে রূপকথার গল্পের 

আর উচ্ছ্বাস হবে নাই বা কেন! পার্কেন স্টেডিয়ামে হদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর, তাঁর ফুটবল জীবনটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল। ইন্টার মিলান তাঁকে আর খেলার সুযোগ দেয়নি। দেশের জার্সিতে আর মাঠে ফিরতে পারবেন কিনা, নিশ্চিত ছিলেন না তিনি। তবে এরিকসেনের পায়ে ফুটবল ফিরিয়ে দিয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ব্রেন্ট ফোর্ড। সেই সঙ্গে দেশের জার্সিতেও তিনি এখন ফুল ফোটাচ্ছেন।

সার্বিয়াকে ৩-০ হারায় ডেনমার্ক। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে ছিল তারা। জোয়াকিম মেহলে ১৫ মিনিটে এগিয়ে দেন ডেনমার্ককে। বিরতিতে অবশ্য ১-০-তেই এগিয়ে ছিল এরিকসনের দল। এর পর দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৫৩ মিনিটে জেস্পার লিন্ডস্ট্রোম ২-০ করেন এবং ৫৭ মিনিটে ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন দলের হয়ে তিন নম্বর গোলটি করেন।

বন্ধ করুন