বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > Copa 2020: মুখোমুখি 'লা আলবিসেলেস্তে' এবং ' লা সেলেস্তে', দেখে নিন পরিসংখ্যান
মেসি বনাম সুয়ারেজের লড়াই।
মেসি বনাম সুয়ারেজের লড়াই।

Copa 2020: মুখোমুখি 'লা আলবিসেলেস্তে' এবং ' লা সেলেস্তে', দেখে নিন পরিসংখ্যান

  • আর্জেন্তিনা বনাম উরুগুয়ে, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশের মধ্যে এটি হতে চলেছে ২০০ তম আন্তর্জাতিক ম্যাচের লড়াই।

শুভব্রত মুখার্জি

কোপা আমেরিকা ফুটবল প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে অন্যতম তিন শক্তিধর দেশ ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা এবং উরুগুয়ে। চলতি কোপায় তাদের গ্রুপ ম্যাচে ভারতীয় সময় ভোর রাতে শনিবার মুখোমুখি হতে চলেছে ' লা আলবিসেলেস্তে' এবং ' লা সেলেস্তে'। নাম দুটো শুনে একটু মাথা চুলকাচ্ছেন নিশ্চয়। ভাবছেন কাদের কথা বলছি বা বলার চেষ্টা করছি। আসলে স্থানীয় ভাষায় আর্জেন্টিনা দল 'লা আলবিসেলেস্তে' এবং উরুগুয়ে দল ' লা সেলেস্তে' এই নামেই পরিচিত। ফলে ক্লাব স্তরে একদা দুই সতীর্থ তথা অভিন্ন হৃদয় বন্ধু লিওনেল মেসি ও লুইস সুয়ারেজ যখন তাদের দেশের হয়ে খেলতে নামবেন সেই ম্যাচ দুদেশের ফুটবল ইতিহাসে একটা আলাদা জায়গা করে নিতে চলেছে।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশের মধ্যে এটি হতে চলেছে ২০০ তম আন্তর্জাতিক ম্যাচের লড়াই। অর্থাৎ দীর্ঘকালীন ময়দানী 'শত্রুতার' ইতিহাসে কাল যোগ হতে চলেছে আরেক অধ্যায়। যার সাক্ষী থাকতে চলেছে সারা বিশ্বের কোটি কোটি ফুটবলপ্রেমীরা। দুই দেশের ফুটবল ইতিহাস অত্যন্ত সমৃদ্ধ। দুই দেশ দুবার করে বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছে। ১৯৩০ সালে যেবার প্রথম বিশ্বকাপ ফুটবল শুরু হয়েছিল সেইবার প্রথমবারের মতন শিরোপা জিতে নজির গড়েছিল উরুগুয়ে। তারপর ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপ ট্রফি জয়ের পরে উরুগুয়ের ফুটবলে বেশ কয়েকটা দশক খরা চলেছে। যা এখন আবার সুয়ারেজ,কাভানিদের হাত ধরে কাটার মুখে। অন্যদিকে মেসির দেশ ১৯৭৮ ও ৮৬ সালে বিশ্বকাপ ট্রফি জয়ের পরে আর সেভাবে সাফল্যের মুখ দেখেনি। কোপার শেষ দুটি সংস্করনে ফাইনালে উঠেও হারের মুখ দেখেছিল মেসিরা। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তারা ও মুখিয়ে থাকবে চলতি প্রতিযোগিতায় ভাল কিছু করতে।

আসুন এই দুই দেশের ২০০ তম ম্যাচের প্রাক্কালে দাড়িয়ে চোখ বুলিয়ে নেয়া যাক কিছু 'কাকাতলীয়' নজির,পরিসংখ্যানের দিকে।

১) কাল ২০০ তম ম্যাচের আগে আপাতত ১৯৯ ম্যাচ খেলেছে দু দেশ যাতে আর্জেন্টিনা জয় পেয়েছে ৯১ টি ম্যাচে, উরুগুয়ে ৫৯ টি ম্যাচে জয় পেয়েছে এবং ৪৯ টি ম্যাচ ড্র হয়েছে।

২) দ্বিতীয় পরিসংখ্যানটি বেশ কাকাতলীয়। আর্জেন্টিনা দলের বর্তমান দুই ফুটবলার মেসি ( ৭৩) ও আগুয়েরোর (৪১) মিলিত গোলসংখ্যা ১১৪। আবার সুয়ারেজ (৬৩) ও কাভানির ( ৫১) মিলিত গোলসংখ্যাও ১১৪।

৩) উরুগুয়ের হয়ে সুয়ারেজ, গোলরক্ষক মুসলেরা ও কাভানি তিনজনেই মোট ১১৮ টি ম্যাচ খেলেছেন।

৪) উরুগুয়ের কোচ হিসেবে এটি অস্কার তাভারেজের ২১৬ তম ম্যাচ। একটি দেশের কোচ হিসেবে এতগুলো ম্যাচ প্রশিক্ষন দেয়ার নজির বিরল।

৫) উরুগুয়ের হয়ে যদি কাল মাঠে থাকেন ডিয়েগো গডিন (১৪১) ও মার্টিন কাসেরেস (১০১) তাহলে মাঠে এমন পাচ ফুটবলার থাকবেন যাদের দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার 'শতরান' হয়ে গেছে। যা একেবারেই বিরল নজির।

অর্থাৎ কাল কোপার ম্যাচে কার্যত 'একশত' এবং 'দ্বিশতের' একাধিক নজির ইতিহাস বইতে জায়গা করে নিতে চলেছে।

বন্ধ করুন