বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > Durand Cup-এ করোনা! টুর্নামেন্ট থেকে নাম তুলে নিল আর্মি রেড
ডুরান্ড কাপে করোনার থাবা
ডুরান্ড কাপে করোনার থাবা

Durand Cup-এ করোনা! টুর্নামেন্ট থেকে নাম তুলে নিল আর্মি রেড

  • ডুরান্ড কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে করোনার থাবা। বন্ধ হল ম্যাচ, শেষ আটে উঠেও টুর্নামেন্ট থেকে নাম তুলে নিল দল।

গত বছর করোনা আবহে বন্ধ ছিল ঐতিহ্যশালী ডুরান্ড কাপ। তবে চলতি বছরে সব বাঁধা টপকে আবার কলকাতায় বসেছে ডুরান্ড কাপের আসর। অতিমারী আবহে দীর্ঘদিন পর যুবভারতীতে বল গড়িয়েছিল। সেনাবাহিনী আয়োজিত টুর্নামেন্টের উদ্বোধনে হেলিকপ্টার থেকে পুষ্পবৃষ্টিও করা হয়েছিল। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাঠে ছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ও প্রতিমন্ত্রী মনোজ তিওয়ারি। মাঠে প্রথমে দুই দলের ফুটবলারদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপরই ফুটবলে শট দিয়ে টুর্নামেন্টের সূচনা করেছিলেন তিনি।

এবার সেই টুর্নামেন্টে থাবা বসাল করোনা। আক্রান্ত আর্মি রেডের এক ফুটবলার। আর তার জেরেই ভেস্তে গেল বেঙ্গালুরু ইউনাইটেড বনাম আর্মি রেডের কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচ। শুধু তাই নয়, পাশাপাশি টুর্নামেন্ট থেকে নামও তুলে নেওয়ার কথাও ঘোষণা করল আর্মি রেড। প্রসঙ্গত, ১৬টি দলকে মোট চারটে গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। গ্রুপ স্টেজ পর্বের পর আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকেই শুরু হওয়ার কথা ছিল কোয়ার্টার ফাইনাল। কিন্তু কল্যাণী স্টেডিয়ামে আর্মি রেড বনাম বেঙ্গালুরু ইউনাইটেড ম্যাচের আগেই আর্মির এক খেলোয়াড়ের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে। 

এরপরই অন্যান্য খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ম্যাচ বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে আর্মি রেড টুর্নামেন্ট থেকেই নাম তুলে নিল। ফলে সেমিফাইনালে পৌঁছাল বেঙ্গালুরু ইউনাইটেড। টুর্নামেন্টের দু’টি সেমিফাইনাল ২৭ এবং ২৯ সেপ্টেম্বর। ফাইনাল ৩ অক্টোবর। ডুরান্ড কাপের ১৬টি দলের মধ্যে বাংলা থেকে খেলছে একমাত্র মহমেডান স্পোর্টিং। এএফসি কাপের জন্য ডুরান্ডে খেলতে পারেনি এটিকে মোহনবাগান। সময়ে দল গঠন করা যায়নি বলে টুর্নামেন্টে অংশ নেয়নি এসসি ইস্টবেঙ্গলও।

বন্ধ করুন