বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > রোনাল্ডোর ঘর ওয়াপসি নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন
ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড জার্সিতে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)
ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড জার্সিতে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। ছবি- রয়টার্স। (REUTERS)

রোনাল্ডোর ঘর ওয়াপসি নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন

  • রোনাল্ডোর ম্যান ইউনাইটেড প্রত্যাবর্তনে ফার্গুসনই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন বলে জল্পনা।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর ঐতিহাসিক ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড প্রত্যাবর্তনের পর বেশ কিছুটা সময় কেটে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই রেড ডেভিলসদের হয়ে চারটি গোলও করে ফেলেছেন তিনি। রোনাল্ডোর ঘর ওয়াপসিতে তাঁর প্রথম ইউনাইটেড ম্যানেজার স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন বলেই জল্পনা। এবার প্রিয় শিষ্যের প্রত্যাবর্তন নিয়ে মুখ খুললেন কিংবদন্তী ম্যানেজার।

ট্রান্সফার উইন্ডোর শেষ দিনে ২০ মিলিয়ন ইউরোর বদলে দুই বছরের চুক্তিতে ইউনাইটেডে যোগ দেন রোনাল্ডো। ৩৬ বছর বয়সী পর্তুগিজ তারকা এখনও অবধি থামার কোন ইঙ্গিত তো দেনইনি, বরং চেনা পরিবেশে ফিরে স্বাচ্ছন্দ্যে একের পর এক গোল করেছেন। রোনাল্ডোর ম্যান ইউনাইটেডে পুনরায় যোগদানে ফার্গুসনই মধ্যমণি হয়েছিলেন বলে খবর। শিষ্যের আবেগপ্রবণ প্রত্যাবর্তনের পর প্রথম ম্যাচে ওল্ড ট্রাফোর্ডে প্রবল জনসাধারণের মাঝে দুই গোল করে শিরোনাম কেড়ে নেওয়ার ঘটনার সাক্ষীও ছিলেন তিনি। এই মহাপ্রত্যাবর্তন নিয়ে এবার প্রথমবার প্রকাশ্যে নিজের মতামত জানালেন মতান্তরে সর্বকালের সর্বসেরা ফুটবল ম্যানেজার।

রোনাল্ডোর ইউনাইটেডে ফেরার সঙ্গে সিজারের যুদ্ধ জয় করে রোমে ফেরার তুলনা টেনে ক্লাবের অফিসিয়াল পডকাস্টে ফার্গুসন বলেন, ‘এক কথায় দারুণ। ওই শনিবার (নিউক্যাসেলের বিরুদ্ধে অভিষেক ম্যাচে) গোটা ঘটনাটা যেন অনেকটা সিজারের যুদ্ধ জয় করে রোমার ফেরার। আসলাম, দেখলাম, জয় করলাম ধরনের। ওই দিন যে কত লোক মাঠের বাইরে দাঁড়িয়ে ছিল, তার কোন ইয়ত্তা নেই। ম্যাচে কোটি কোটি সমর্থকের বসার জায়গা থাকলে ওইদিন সবটাই পূর্ণ হয়ে যেত।’

রোনাল্ডো যে সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলারে পরিণত হবেন, তার আভাস বহু আগেই পেয়েছিলেন বলে দাবি ফার্গুসনের। অতীতের স্মৃতি হাতড়ে তাঁর ম্যানেজার থাকাকালীন রোনাল্ডোর সঙ্গে তাঁর মুহূর্তের কথাও জানান তিনি। ‘ও সেরা হওয়ার জন্য নিজের সবটুকু উজাড় করে দিয়েছে। আমার মনে আছে আমদের শনিবার আর্সেনালের বিরুদ্ধে খেলার কথা ছিল এবং ক্যারিংটনে (ইউনাইটেডের ট্রেনিং মাঠ) মুশুলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল। ও যে আলাদাভাবে অধিক অনুশীলন করত তা সবাই জানে। আমি ওকে ওই পরিস্থিতিতে ভেজা মাঠে চোট লাগার ভয়ে অনুশীলন না করে ভেতরে আসার জন্য বলি। তবে অফিসে এসে আমি জানলা দিয়ে দেখি ও মাঠের পরিবর্তে অ্যাস্ট্রোটার্ফে অনুশীলন করছে। আমার আর কিছু বলার ছিল না।’ জানান ফার্গুসন।

রোনাল্ডো প্রত্যাশিতভাবে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডকে খেতাব জেতাতে পারবেন কি না, তা ভবিষ্যৎই বলবে। তবে ফার্গুসনের এই ঘটনার বিবরণ থেকে একটা জিনিস পরিস্কার, নিজের দিক থেকে চেষ্টায় কোনরকম ত্রুটি রাখবেন না পর্তুগিজ মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।

বন্ধ করুন