বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > রোনাল্ডোকে রোজ খেলানো সম্ভব নয়, ফার্গুসনের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সাফ জবাব ওলের
ম্যান ইউনাইটেড ম্যানেজার ওলে গানার সোল্কজায়ের। ছবি- রয়টার্স। (Action Images via Reuters)
ম্যান ইউনাইটেড ম্যানেজার ওলে গানার সোল্কজায়ের। ছবি- রয়টার্স। (Action Images via Reuters)

রোনাল্ডোকে রোজ খেলানো সম্ভব নয়, ফার্গুসনের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সাফ জবাব ওলের

  • এভারটনের বিরুদ্ধে রোনাল্ডো, পোগবা দ্বিতীয়ার্ধে নামলেও ম্যাচ ড্র করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ম্য়ান ইউনাইটেডকে।

ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সময়টা খুব একটা ভাল কাটছে না। শেষ পাঁচটা ম্যাচের মধ্যে চারটে পরাজয় ম্যানেজার ওলে গানার সোল্কজায়েরের ওপর চাপ বাড়াচ্ছে। উপরন্তু, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে বেঞ্চে বসানো এবং তা নিয়ে কিংবদন্তি ম্যানেজার স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের মন্তব্য ওলের ওপর বাড়তি চাপ ফেলেছে। তবে এসব নিয়ে বিন্দুমাত্র বিচলিত নন ওলে।

এভারটন ম্যাচে রোনাল্ডো, পল পোগবাকে বেঞ্চে রেখেই দলে বেশ কিছু পরিবর্তন করে মাঠে নামেন ওলে। এই দুই তারকাই দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামলেও মার্সিসাইডারদের বিরুদ্ধে ড্র করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় রেড ডেভিলসদের। এরপরেই ওল্ড ট্রাফোর্ড লাউঞ্জে ম্যাচ দেখতে আসা বিখ্যাত মিক্সড মার্শাল আর্টিস্ট খাবিবের সঙ্গে এক কথোপকথনে রোনাল্ডো ম্যাচ স্টার্ট না করায় নিজের হতাশার কথা জানান স্যার অ্যালেক্স। তাঁর ও খাবিবের কথোপকথন মার্শাল আর্টিটেস্টের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে সাউন্ড সমেত দেওয়া হয়। প্রকাশ্যে ফার্গুসনের সমালোচনা বেশ বড় আকারের শিরোনাম নেয়। 

তবে নিজের প্রাক্তন ম্যানেজারের ভিন্ন মতামত সত্ত্বেও ওলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, পতুর্গিজ মহাতারকাকে রোজ খেলানো সম্ভব নয়। তিনি বলেন, ‘রোনাল্ডোকে তো আমরা সকলেই দেখতে চাই, কারণ ও বাকিদের থেকে আলাদা। কিন্তু সহজ ভাষায় বলতে গেলে রোনাল্ডোকে সব ম্যাচে খেলানো সম্ভব নয়। ও আমাদের মরশুমের প্রতিটা ম্যাচ খেলতে পারবেনা, শারীরিকভাবে এটা সম্ভব নয়। উনি জানেন এই কাজটা কতটা কঠিন। উনিও তো অনেকসময় ওয়েন রুনি, রায়ান গিগসদের ছাড়াই মাঠে নামার ঝুঁকি নিতেন। কখনও কখনও এটা কার্যকরী হয়, কখনও হয়না।’

এই বিষয়ে তাঁর সঙ্গে ফার্গুসনের কোন বিরোধ তো নেই, বরং তাঁর প্রাক্তন ম্যানেজারের পাশে দাঁড়িয়ে তিনি এমন ব্যক্তিগত মতামত সর্বসমক্ষে চলে আসার বিরোধ করেন। ‘আমার গোটা ব্যাপারটা নিয়ে কোন চাপ নেই। তবে এমনকিছু সবার মধ্যে ব্রডকাস্ট হওয়াটা গ্যাফারের (ম্যানেজার) প্রতি অবিচার। সকলেরই নিজস্ব মতামত থাকতে পারে। কেউ যখন কারুর সঙ্গে সেই বিষয়ে কথা বলে তাহলে তার মানে সে তাঁকে ভরসা করেই সেটা বলছে। খেলোয়াড় হিসাবেও আমার ও গ্যাফারের অনেকসময়ই মতবিরোধ হয়েছে এবং সেই বিষয়ে আমি নিজের স্ত্রীকে বলেওছি। তবে সেটাতো কোনদিন শিরোনাম হয়নি। আমি নিশ্চিত স্যার অ্যালেক্স জানেন দুইজনের মতামত ভিন্ন হলেও তাতে সমস্যা নেই।’ দাবি ওলের।

বন্ধ করুন