বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ডুরান্ডের ডার্বির ঠিক নেই, এর মাঝেই টুটুর বসুর হুঙ্কার ‘ইস্টবেঙ্গলকে ৫ গোল দেব’
টুটু বসু।

ডুরান্ডের ডার্বির ঠিক নেই, এর মাঝেই টুটুর বসুর হুঙ্কার ‘ইস্টবেঙ্গলকে ৫ গোল দেব’

  • সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে যখন টুটু বসুকে মঞ্চে আসার জন্য অনুরোধ জানানো হয়, তখন মাইক নিয়ে মোহনবাগান সভাপতি সরাসরি জানিয়ে দেন, যদি ইস্টবেঙ্গলকে পাঁচ গোল দেওয়া হয়, তা হলেই তিনি মঞ্চে উঠবেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য আশ্বাস পেয়ে মঞ্চে ওঠেন টুটু বসু।

মোহনবাগান দিবসেও সবুজ-মেরুন জুড়ে দিল জার্বির আবহ। যদিও ডার্বি ১৬ তারিখ সম্ভব হবে না। পিছিয়ে ২৮ অগস্ট হতে পারে। নাও পারে। মোদ্দা কথা, ডুরান্ড কাপের ডার্বি কবে হবে, তার ঠিক নেই, এর মাঝেই ইস্টবেঙ্গলকে হারানোর হুঙ্কার দিলেন মোহনবাগান প্রেসিডেন্ট স্বপনসাধন বসু, যিনি ময়দানে টুটু বসু নামে বেশি পরিচিত। তাও আবার ৫ গোল দেওয়ার হুঙ্কার দিলেন তিনি।

সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে যখন টুটু বসুকে মঞ্চে আসার জন্য অনুরোধ জানানো হয়, তখন মাইক নিয়ে মোহনবাগান সভাপতি সরাসরি জানিয়ে দেন, যদি ইস্টবেঙ্গলকে পাঁচ গোল দেওয়া হয়, তা হলেই তিনি মঞ্চে উঠবেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য আশ্বাস পেয়ে মঞ্চে ওঠেন টুটু বসু।

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গলের জন্য সম্ভবত পিছোচ্ছে ডার্বি, এ দিকে প্রস্তুতিতে নেমে পড়ল ATK MB

শুধু টুটু বসু নন, উপস্থিত মোহনবাগান সদস্য-সমর্থকরাও চিৎকার করছিলেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের পাঁচ গোল দেওয়ার জন্য। এমন কী, যখন ইস্টবেঙ্গলের তরফে দুই প্রতিনিধি এসে মোহনবাগান সচিব দেবাশিস দত্তকে ফুলের তোড়া দেন, তখনও দর্শকদের মধ্যে থেকে এই হুঙ্কার উঠে আসে।

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গলকে ভরসা করতে পারলেন না, ATK MB-তেই থেকে গেলেন প্রীতম

১৯৭৫ সালে ঘরের মাঠে ইস্টবেঙ্গলের কাছে ৫-০ খাওয়ার যন্ত্রণা আজও টাটকা মোহনবাগানীদের হৃদয়ে। যদিও ২০০৯ সালে ইস্টবেঙ্গলের জালে পাঁচ গোল দিয়েছিল মোহনবাগান, কিন্তু ৩ গোল হজমও করতে হয়েছিল। আর ৫-০ এবং ৫-৩ এর মধ্যে তফাৎ তো রয়েছেই।

জানা গিয়েছে, ১৬ অগস্টের ডার্বি সম্ভবত পিছোতে চলেছে। মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল ম্যাচ দিয়ে ডুরান্ড শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে লাল-হলুদের এখনও চুক্তিই সই হয়নি। তার পর তো ফুটবলারদের সই বাকি। অনুশীলন শুরু তো দূরের কথা। যে কারণে ইমামির তরফে ডার্বি পিছানোর আবেদন করা হয়েছে। যা নিয়ে মোহনবাগান সচিব দেবাশিস দত্ত কটাক্ষ করে বলেছেন, ‘ওরা আসলে আমাদের সঙ্গে খেলতে ভয় পাচ্ছে।’ ইস্টবেঙ্গল শীর্ষ কর্তা দেবব্রত সরকার পাল্টা বলেছেন, ‘আমরা এর উত্তর ঠিক সময়ে দেব।’ যাইহোক আপাতত জানা গিয়েছে, ডার্বির দিন সম্ভবত ২৮ অগস্ট পিছিয়ে যাচ্ছে।

বন্ধ করুন