বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > চুক্তি জটে ইস্টবেঙ্গল কর্তাদেরই দোষ দেখছেন, ক্লাবেরই নিয়োগ করা মধ্যস্থতাকারী
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব।

চুক্তি জটে ইস্টবেঙ্গল কর্তাদেরই দোষ দেখছেন, ক্লাবেরই নিয়োগ করা মধ্যস্থতাকারী

  • ইস্টবেঙ্গলের চুক্তি জট কাটাতে এ বার আসরে নেমে পড়েছেন ক্লাবের প্রাক্তন সচিব তথা বিশিষ্ট আইনজীবী পার্থসারথি সেনগুপ্ত। তবে টার্মশিটের সঙ্গে মূল চুক্তিপত্রের কোনও পার্থক্য তিনি দেখতে পাচ্ছে না বলেই দাবি করেছেন।

চুক্তি জট কাটাতে লাল-হলুদ কর্তারা এ বার প্রাক্তন সচিবের দ্বারস্থ হয়েছেন ক্লাবের প্রাক্তন সচিব তথা বিশিষ্ট আইনজীবী পার্থসারথি সেনগুপ্তর। আর এই চুক্তি জট কাটাতে এ বার আসরে নেমে পড়েছেন পার্থসারথি সেনগুপ্ত। তিনি ক্লাবের আইনজীবীর সঙ্গে এই সম্পর্কে কথাবার্তা বলেছেন। এমন কী চুক্তিপত্র সংক্রান্ত বিষয়ে বিনিয়োগকারী সংস্থা অর্থাৎ শ্রী সিমেন্টকে আইনী প্রস্তাব দিয়েছেন লাল-হলুদের প্রাক্তন সচিব।

ক্লাব এবং বিনিয়োগকারীদের মধ্যে চুক্তি জট মেটাতে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে গুরুদায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ‘ক্লাবের আইনজীবীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। টার্মশিটের সঙ্গে মূল চুক্তিপত্রের কোনও পার্থক্য তারা দেখাতে পাচ্ছে না। শুধু বলে চলেছে, কোনটা হওয়া দরকার, আর কোনটা নয়। টার্মশিটে সই করার আগেই তো সবটা ভেবেচিন্তে সই করতে হত। তাও আমি দেখছি, একটা সমাধানসূত্র বের করার। তবে ’

কতদিনে এই চুক্তি টের সমাধান হবে, এই প্রশ্নের উত্তরে পার্থসারথিবাবু বলেছেন, ‘আমি তো আর জ্যোতিষী নই। আগে থেকেই বলে দিতে পারব কত দিনেরমধ্যে সমস্যা মিটে যাবে। ক্লাবও চুক্তিপত্রে সই করে দেবে। এটা দুই পক্ষের ব্যাপার।’ এর সঙ্গে তিনি যুক্ত করেছেন,  ‘৩১ আগস্ট পর্যন্ত ট্রান্সফার উইন্ডো খোলা রয়েছে। তার মধ্যে সমস্যা না মিটলে এসসি ইস্টবেঙ্গল দল তৈরি করে কী করে মাঠে নামবে? কারণ কয়েক দিন বাদেই শুরু হয়ে যাবে কলকাতা লিগ। তার পর আইএসএল।’

বন্ধ করুন